০২:২৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
                       

পাঠানো হলো ইরানের নতুন স্যাটেলাইট খৈয়াম

  • প্রকাশ: ০৮:৫৭:০১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ অগাস্ট ২০২২
  • / ৬০০ বার পড়া হয়েছে

ইরানের স্যাটেলাইট খৈয়াম

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের আরেকটি স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠানো হয়েছে আগস্ট ১৮, ২০২২। এই স্যাটেলাইটের নাম হচ্ছে ‘খৈয়াম’। ইরানের এই স্যাটেলাইটটি কাজাখস্তানে অবস্থিত রুশ নিয়ন্ত্রিত ‘বাইকোনুর’ কেন্দ্র থেকে উৎক্ষেপণ করা হয়েছে।

ইরানের মহাকাশ সংস্থা জানিয়েছে, তারা ‘খৈয়াম’ স্যাটেলাইটের মাধ্যমে মহাকাশ থেকে তথ্য পেতে শুরু করেছে। ইরানের বিভিন্ন সূত্র বলেছে, এই স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের মধ্যদিয়ে মহাকাশে তেহরান-মস্কো কৌশলগত সহযোগিতার সূচনা হলো।

ইরান সরকারের মুখপাত্র আলী বাহাদুরি জাহরোমি স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের সাফল্যে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেছেন, মহাকাশেও ইরানের জ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রভাব বিস্তার করেছে।

তিনি আরও বলেছেন- প্রাকৃতিক পরিবেশ, খনিজ সম্পদ, বন, কৃষিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে এই স্যাটেলাইটকে কাজে লাগানো হবে। এছাড়া দেশের সীমান্ত রক্ষায় এই স্যাটেলাইটের পাঠানো তথ্য ও ছবি ব্যবহার করা হবে।

ইরান মহাকাশ গবেষণায় এ পর্যন্ত অনেক সাফল্য অর্জন করেছে এবং নিজেরাই এ পর্যন্ত কয়েকটি স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠিয়েছে।

২০১৭ সালে ইমাম খোমেনী (রহ.) মহাকাশ কেন্দ্র সফলতার সঙ্গে স্যাটেলাইটবাহী রকেট সী-মোর্গ উৎক্ষেপণ করে এবং সেটি সফলভাবে কক্ষপথে স্যাটেলাইট স্থাপন করে। বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে, মহাকাশে স্যাটেলাইট পাঠানোর ক্ষেত্রে প্রধান ৬টি দেশের অন্যতম হতে চায় ইরান।

খবর: পার্স টুডে, ইরান

শেয়ার করুন

মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার তথ্য সংরক্ষিত রাখুন

লেখকতথ্য

কন্ট্রিবিউটর, বিশ্লেষণ
তাহসান খান এবং মুনজেরিন শহীদের দুটি প্রফেশনাল কমিউনিকেশন কোর্স করুন ২৮% ছাড়ে
তাহসান খান এবং মুনজেরিন শহীদের দুটি প্রফেশনাল কমিউনিকেশন কোর্স করুন ২৮% ছাড়ে

২৮℅ ছাড় পেতে ৩০/০৬/২০২৪ তারিখের মধ্যে প্রোমো কোড “professional10” ব্যবহার করুন। বিস্তারিত জানতে ও ভর্তি হতে ক্লিক করুন এখানে

পাঠানো হলো ইরানের নতুন স্যাটেলাইট খৈয়াম

প্রকাশ: ০৮:৫৭:০১ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৬ অগাস্ট ২০২২

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের আরেকটি স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠানো হয়েছে আগস্ট ১৮, ২০২২। এই স্যাটেলাইটের নাম হচ্ছে ‘খৈয়াম’। ইরানের এই স্যাটেলাইটটি কাজাখস্তানে অবস্থিত রুশ নিয়ন্ত্রিত ‘বাইকোনুর’ কেন্দ্র থেকে উৎক্ষেপণ করা হয়েছে।

ইরানের মহাকাশ সংস্থা জানিয়েছে, তারা ‘খৈয়াম’ স্যাটেলাইটের মাধ্যমে মহাকাশ থেকে তথ্য পেতে শুরু করেছে। ইরানের বিভিন্ন সূত্র বলেছে, এই স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের মধ্যদিয়ে মহাকাশে তেহরান-মস্কো কৌশলগত সহযোগিতার সূচনা হলো।

ইরান সরকারের মুখপাত্র আলী বাহাদুরি জাহরোমি স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের সাফল্যে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেছেন, মহাকাশেও ইরানের জ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রভাব বিস্তার করেছে।

তিনি আরও বলেছেন- প্রাকৃতিক পরিবেশ, খনিজ সম্পদ, বন, কৃষিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে এই স্যাটেলাইটকে কাজে লাগানো হবে। এছাড়া দেশের সীমান্ত রক্ষায় এই স্যাটেলাইটের পাঠানো তথ্য ও ছবি ব্যবহার করা হবে।

ইরান মহাকাশ গবেষণায় এ পর্যন্ত অনেক সাফল্য অর্জন করেছে এবং নিজেরাই এ পর্যন্ত কয়েকটি স্যাটেলাইট মহাকাশে পাঠিয়েছে।

২০১৭ সালে ইমাম খোমেনী (রহ.) মহাকাশ কেন্দ্র সফলতার সঙ্গে স্যাটেলাইটবাহী রকেট সী-মোর্গ উৎক্ষেপণ করে এবং সেটি সফলভাবে কক্ষপথে স্যাটেলাইট স্থাপন করে। বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে, মহাকাশে স্যাটেলাইট পাঠানোর ক্ষেত্রে প্রধান ৬টি দেশের অন্যতম হতে চায় ইরান।

খবর: পার্স টুডে, ইরান