০১:২৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
                       

স্বচ্ছ ভারত অভিযান কী, এর উদ্দেশ্য ও ইতিহাস

বিশ্লেষণ সংকলন টিম
  • প্রকাশ: ০৯:৫৭:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৫ এপ্রিল ২০২২
  • / ৪৩৬৪ বার পড়া হয়েছে

লোগো: স্বচ্ছ ভারত অভিযান

স্বচ্ছ ভারত অভিযান হলো ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দে ভারত সরকার কর্তৃক প্রচলিত একটি জাতীয় প্রকল্প যার মাধ্যমে দেশের ৪০৪১ টি শহরের সড়ক এবং পরিকাঠামোকে পরিষ্করণের ব্যবস্থা করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। ‘স্বচ্ছ ভারত অভিযান’-কে ইংরেজিতে ‘Swachh Bharat Mission’ এবং হিন্দিতে ‘स्वच्छ भारत अभियान’ লেখা ও বলা হয়। ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ২রা অক্টোবর নয়া দিল্লির রাজঘাট সমাধি পরিসরে স্বচ্ছ ভারত প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক সূচনা করা হয়, সেখানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজেই রাস্তা পরিষ্কার করেন। সেই দিন এই প্রকল্পকে রূপায়িত করতে দেশের প্রায় ত্রিশ লক্ষ সরকারি কর্মচারী এবং ছাত্ররা অংশগ্রহণ করেন।

২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ই আগস্ট ভারতের স্বাধীনতা দিবসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী স্বচ্ছ ভারত অভিযানের ঘোষণা করেন এবং ঐ বছর ২রা অক্টোবর গান্ধী জয়ন্তী উপলক্ষে এই প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন। এই দিন নয়া দিল্লির রাজঘাট সমাধি পরিসরে আয়োজিত একটি জনসভায় তার ভাষণে তিনি দেশের জনগণকে এই প্রকল্পে সামিল হওয়ার জন্য আবেদন করেন। পরে সেই দিনই তিনি মন্দির মার্গ পুলিশ স্টেশনের একটি গাড়ি রাখার স্থান এবং কনট প্লেসের নিকটে বাল্মীকি বস্তি পরিষ্কার করার কাজে স্বয়ং অংশগ্রহণ করেন। ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় প্রতি ভারতীয়কে বছরে একশত ঘণ্টা এই প্রকল্পের জন্য ব্যয় করার অনুরোধ জানান।

স্বচ্ছ ভারত অভিযানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের ২রা অক্টোবরে মহাত্মা গান্ধীর দেড়শততম জন্মবার্ষিকীর মধ্যে এই প্রকল্প সম্পন্ন করার লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পের জন্য ₹৬২,০০০ কোটি (US$ ৮.৩৭ বিলিয়ন) অর্থ খরচ হবে বলে মনে করা হয়েছে। এই যোজনা সংকীর্ণ রাজনীতির উর্দ্ধে এবং জাতীয়তাবাদের দ্বারা অনুপ্রাণিত বলে বর্ণনা করা হয়েছে।

২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ২রা অক্টোবর রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে ‘স্বচ্ছ ভারত দৌড়’ অনুষ্ঠিত হয়। ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় পতাকা নেড়ে এই দৌড় শুরু করেন এবং প্রায় ১৫০০ জন মানুষ এতে অংশগ্রহণ করেন।

বিষয়:

শেয়ার করুন

মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার তথ্য সংরক্ষিত রাখুন

তাহসান খান এবং মুনজেরিন শহীদের দুটি প্রফেশনাল কমিউনিকেশন কোর্স করুন ২৮% ছাড়ে
তাহসান খান এবং মুনজেরিন শহীদের দুটি প্রফেশনাল কমিউনিকেশন কোর্স করুন ২৮% ছাড়ে

২৮℅ ছাড় পেতে ৩০/০৬/২০২৪ তারিখের মধ্যে প্রোমো কোড “professional10” ব্যবহার করুন। বিস্তারিত জানতে ও ভর্তি হতে ক্লিক করুন এখানে

স্বচ্ছ ভারত অভিযান কী, এর উদ্দেশ্য ও ইতিহাস

প্রকাশ: ০৯:৫৭:৫৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৫ এপ্রিল ২০২২

স্বচ্ছ ভারত অভিযান হলো ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দে ভারত সরকার কর্তৃক প্রচলিত একটি জাতীয় প্রকল্প যার মাধ্যমে দেশের ৪০৪১ টি শহরের সড়ক এবং পরিকাঠামোকে পরিষ্করণের ব্যবস্থা করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। ‘স্বচ্ছ ভারত অভিযান’-কে ইংরেজিতে ‘Swachh Bharat Mission’ এবং হিন্দিতে ‘स्वच्छ भारत अभियान’ লেখা ও বলা হয়। ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ২রা অক্টোবর নয়া দিল্লির রাজঘাট সমাধি পরিসরে স্বচ্ছ ভারত প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক সূচনা করা হয়, সেখানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজেই রাস্তা পরিষ্কার করেন। সেই দিন এই প্রকল্পকে রূপায়িত করতে দেশের প্রায় ত্রিশ লক্ষ সরকারি কর্মচারী এবং ছাত্ররা অংশগ্রহণ করেন।

২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ই আগস্ট ভারতের স্বাধীনতা দিবসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী স্বচ্ছ ভারত অভিযানের ঘোষণা করেন এবং ঐ বছর ২রা অক্টোবর গান্ধী জয়ন্তী উপলক্ষে এই প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন। এই দিন নয়া দিল্লির রাজঘাট সমাধি পরিসরে আয়োজিত একটি জনসভায় তার ভাষণে তিনি দেশের জনগণকে এই প্রকল্পে সামিল হওয়ার জন্য আবেদন করেন। পরে সেই দিনই তিনি মন্দির মার্গ পুলিশ স্টেশনের একটি গাড়ি রাখার স্থান এবং কনট প্লেসের নিকটে বাল্মীকি বস্তি পরিষ্কার করার কাজে স্বয়ং অংশগ্রহণ করেন। ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় প্রতি ভারতীয়কে বছরে একশত ঘণ্টা এই প্রকল্পের জন্য ব্যয় করার অনুরোধ জানান।

স্বচ্ছ ভারত অভিযানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের ২রা অক্টোবরে মহাত্মা গান্ধীর দেড়শততম জন্মবার্ষিকীর মধ্যে এই প্রকল্প সম্পন্ন করার লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পের জন্য ₹৬২,০০০ কোটি (US$ ৮.৩৭ বিলিয়ন) অর্থ খরচ হবে বলে মনে করা হয়েছে। এই যোজনা সংকীর্ণ রাজনীতির উর্দ্ধে এবং জাতীয়তাবাদের দ্বারা অনুপ্রাণিত বলে বর্ণনা করা হয়েছে।

২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ২রা অক্টোবর রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে ‘স্বচ্ছ ভারত দৌড়’ অনুষ্ঠিত হয়। ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় পতাকা নেড়ে এই দৌড় শুরু করেন এবং প্রায় ১৫০০ জন মানুষ এতে অংশগ্রহণ করেন।