রবিবার, মে ২২, ২০২২

জনতা ব্যাংক থেকে বাড়ি নির্মাণ বা বাড়ি, ফ্ল্যাট বা অ্যাপার্টমেন্ট ক্রয়ের ঋণ নেওয়ার প্রয়োজনীয় তথ্য ও কাগজপত্র

যদি কেউ বাড়ি নির্মাণ করার জন্য বা বাড়ি করার জন্য অথবা কোনো ফ্ল্যাট বা অ্যাপার্টমেন্ট ক্রয় করার জন্য ঋণ নিতে চান, তাহলে সেই ঋণ জনতা ব্যাংক লিমিটেড থেকে নিতে পারেন। জনতা ব্যাংক লিমিটেড একক গৃহ নির্মাণ ঋণ ও অ্যাপার্টমেন্ট ক্রয়ের ঋণ প্রদান করে। জনতা ব্যাংকের এই ঋণ সুবিধা গ্রহণ করতে হলে আপনাকে চক্রবৃদ্ধি সুদের বোঝা বহন করতে হবে।

জনতা ব্যাংকের এই একক ঋণ প্রাপ্তির যোগ্যতা (Eligibility)

  • আবেদনকারীকে বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • ইকুইটি বিনিয়োগ করার আর্থিক সামর্থ্য থাকতে হবে।
  • ঋন পরিশোধের জন্য অনুকুল ক্যাশ ফ্লো থাকতে হবে।
  • সংশ্লিষ্ট শাখায় জমা হিসাব থাকতে হবে।
  • প্রকল্প সম্পত্তির গ্রহন যোগ্যতা থাকতে হবে।
  • অন্যান্য (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে/ব্যাংকের শাখা থেকে জেনে নিতে হবে)।

জনতা ব্যাংক থেকে ঋণ গ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র (Documents)

সাময়িক আবেদনের সাথে দাখিলতব্য কাগজপত্রের তালিকা

  • যথাযথ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমোদিত নির্মাণাধীন/নির্মিতব্য ভবনের নকশা ও নকশার অনুমতি পত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।
  • মূল দলিল, নামজারী খতিয়ান, ডিসিআর, হালসনের খাজনা রশিদের সত্যায়িত ফটোকপি, ইত্যাদি।
  • অত্র সংস্থা কর্তৃক নির্মাণস্থল পরিদর্শনের সুবিধার্থে প্রস্তাবিত নির্মাণ স্থানে যাবার রাসত্মার বিবরণসহ আশে পাশের গুরম্নত্বপূর্ণ স্থাপনা উলেস্নখপূর্বক ট্রেসিং পেপারে ২ কপি হাতে আঁকা রুট ম্যাপ (আবেদনকারীর স্বাক্ষর সম্বলিত)।

ফরমাল আবেদনের সাথে দাখিলতব্য কাগজপত্রের তালিকা

ক. বেসরকারী/ব্যক্তি মালিকানাধীন জমির ক্ষেত্রে

  • আবেদনকারীর মূল মালিকানা দলিল (সাফ কবলা/ দানপত্র/বন্টননামা) এবং উক্ত দলিলের একটি ফটোকপি (৯ম ও তদুর্ধ্ব গ্রেডের অফিসার কর্তৃক সত্যায়িত) দাখিল করতে হবে। মূল দলিল রেজিষ্ট্রি অফিস থেকে আবেদনের পূর্বে পাওয়া না গেলে দলিল উত্তোলনের মূল রশিদ ও দলিল উত্তোলনের ফি বাবদ ২০০/- টাকা এবং দলিলের একটি সার্টিফাইড কপি দাখিল করতে হবে।
  • সি.এস, এস.এ ও আর.এস, বি.এস খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি।
  • নামজারী খতিয়ানসহ ডি.সি. আর ও হালনাগাদ খাজনার রশিদ।
  • এস.এ/আর.এস রেকর্ডীয় মালিক থেকে স্বত্বের ধারাবাহিকতা প্রমাণের চেইন-অব-ডকুমেন্টস এর সত্যায়িত ফটোকপি।
  • জেলা/সাব রেজিষ্টারের অফিস কর্তৃক ইস্যুকৃত ১২ (বার) বছরের তলস্নাশীসহ নির্দায় সার্টিফিকেট (এন.ই.সি)।

খ. সরকার/জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ/(পূর্বেকার হাউজিং সেটেলমেন্ট)/রাজউক/ সিডিএ/ কেডিএ/ আরডিএ/ ক্যান্টনমেন্ট বোর্ড/হাউজিং সোসাইটি (সরকার থেকে বরাদ্দপ্রাপ্ত জমি) ইত্যাদি কর্তৃক বরাদ্দকৃত জমির ক্ষেত্রে

  • মূল বরাদ্দপত্র (এলোটমেন্ট লেটার)।
  • দখল হস্তান্তর পত্র (পজেশন লেটার)।
  • মূল লীজ দলিল ও উহার একটি সত্যায়িত ফটোকপি (৯ম ও তদুর্ধ্ব গ্রেডের অফিসার কর্তৃক সত্যায়িত)। মূল দলিল রেজিষ্ট্রি অফিস থেকে পাওয়া না গেলে দলিল উত্তোলনের মূল রশিদ ও দলিল উত্তোলনের জন্য ২০০/- টাকা ফি প্রদান এবং দলিলের একটি সার্টিফাইড কপি দাখিল করতে হবে।
  • মূল এলোটির কাছ থেকে হসত্মামত্মর মূলে মালিক হলে মূল মালিকানা দলিল এবং বরাদ্দকারী কর্তৃপক্ষের অফিসে নামজারীর কাগজপত্র।
  • লীজ দাতা প্রতিষ্ঠান থেকে কর্পোরেশনের নিকট বন্ধক রাখার অনুমতি/অনাপত্তি পত্র (এন.ও.সি) ইত্যাদি কাগজ পত্র দাখিল করতে হবে।

এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্যের জন্য বিএইচবিএফসি’র ওয়েবসাইট www.bhbfc.gov.bd ভিজিট করুন।

ঋণসীমা, কিস্তি, ধরন ও জামানত

ঋণসীমা (Limit): মোট প্রাক্বলিত নির্মান ব্যয়ের সর্বোচ্চ ৬০ ভাগ অথবানির্মিত/নির্মিতব্য ভবনের ভাড়া যে পরিমান কিস্তি পরিশোধ সম্ভব সে পরিমান ঋণ মঞ্জুর করা যাবে।

সুদের হার (Rate): ১১% চক্রবৃদ্ধি (পরিবর্তনশীল-সুদের হার সংক্রান্ত সর্বশেষ সার্কুলার অনুসারে)

কিস্তির ধরন(Installment Type): মাসিক

লোনের মেয়াদ (Period of loan):    ১ (এক) বছরের গ্রেস পিরিয়ড সহ সর্বোচ্চ ১৫ বছর।

জামানাত (Security):    সংশ্লিষ্ট জমি ও নির্মিতব্য / নির্মাণাধীন ভবন রেজিষ্টার্ড মর্টগেজ হিসাবে ব্যাংকের নিকট দায়বদ্ধ থাকবে।

কোন কোন শাখা থেকে ঋণ নিতে পারবেন (Designated Branches)

  • তোপখানা রোড কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • রাজউক ভবন কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • নগর ভবন কর্পোরেট, ঢাকা
  • মোহাম্মদপুর কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • সাতমসজিদ রোড কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • ঢাকা শেরাটন হোটেল কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • মহাখালী কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • উত্তরা মডেল টাউন কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • গুলশান সার্কেল -২ কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • কামাল আতাতুর্ক এ্যাভেনিউ কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • রাজারবাগ কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • যাত্রাবাড়ী কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • কাওরান বাজার কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • শান্তিনগর কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • মৌচাক মার্কেট কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • ধানমন্ডি কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • গাজীপুর কর্পোরেট শাখা, গাজীপুর
  • টংগী কর্পোরেট শাখা, গাজীপুর
  • সাভার কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • মিরপুর সেকশন -১ কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • মগবাজার কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • নবাব আব্দুল গনি রোড কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • শ্যামলী কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • গুলশান সার্কেল -১ কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • রজনীগন্ধা সুপার মার্কেট কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • জিরোপয়েন্ট কর্পোরেট শাখা, ঢাকা
  • খিলগাঁও রোড শাখা, ঢাকা
  • সোনারগাঁও রোড শাখা, ঢাকা
  • বিবি রোড কর্পোরেট শাখা, নারায়নগঞ্জ
  • সাধারন বীমা ভবন কর্পোরেট শাখা, চট্রগ্রাম।
  • রাজশাহী কর্পোরেট শাখা
  • খুলনা কর্পোরেট শাখা
  • সিলেট কর্পোরেট শাখা
  • বরিশাল কর্পোরেট শাখা
  • বগুড়া কর্পোরেট শাখা
মনির হোসেন
কন্ট্রিবিউটর, বিশ্লেষণ

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন

এই বিভাগের অন্যান্য নিবন্ধ

সমাজমাধ্যম

সবচেয়ে জনপ্রিয়
সবচেয়ে জনপ্রিয়

শিক্ষা কী? শিক্ষার সংজ্ঞা, ধারণা এবং লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

শিক্ষা নিয়ে যারা কথা বলেছেন তাঁরা প্রত্যেকেই নিজের মতো করে ভেবে নিয়েছেন শিক্ষাকে, নিজের মতো করে সংজ্ঞা দিয়েছেন। শিক্ষাবীদ কিংবা মনিষী, যার সংজ্ঞাই দেখা হোক না কেন, খুব একটা সন্তুষ্ট হওয়া যায় না। তাই বলে যাদের হাত ধরে শিক্ষা ও শিক্ষাব্যবস্থা আজ পর্যন্ত এসেছে তাঁদের মতো শিক্ষাবিদ বা মনিষীদের বলে যাওয়া বা লিখে যাওয়া কথাগুলোকে এড়িয়ে চলাও সম্ভব নয়।

গবেষণা: গবেষণার সংজ্ঞা, ধারণা ও প্রকারভেদ

গবেষণা হলো কোনো কিছু সম্পর্কে জানার জন্য নিয়মতান্ত্রিক ও ধারাবাহিকভাবে অনুসন্ধান প্রক্রিয়া এবং একটি গবেষণা শুধু একটি প্রকারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ না থেকে দুই বা ততোধিক প্রকারের হতে পারে

মূল্যবোধ কাকে বলে এবং মূল্যবোধের উৎস ও প্রকারভেদ কী?

মূল্যবোধ শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ হচ্ছে Value এটি গঠিত হয়েছে...

নেতা ও নেতৃত্ব কাকে বলে? একজন আদর্শ নেতার গুণাবলি কী?

নেতৃত্বের মূল কাজ হলো আওতাভুক্ত ব্যক্তিবর্গকে প্রভাবিত করা, যাতে তারা নেতার নির্দেশ মেনে নেয় ও সে মোতাবেক কাজ করে। 

শিক্ষা: অভীক্ষার সংজ্ঞা এবং বৈশিষ্ট্য

শিক্ষাক্ষেত্রে অভীক্ষা খুবই পরিচিত একটি পদ। যারা শিক্ষাবিজ্ঞান পড়েছেন...

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার সংজ্ঞা, পরিধি এবং গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা

মানব সভ্যতার শুরু থেকেই ব্যবস্থাপনা বিভিন্ন মানব সংগঠনের সাথে...

ইতিহাস কাকে বলে? ইতিহাসের বিষয়বস্তু, উপাদান এবং ইতিহাস পাঠের প্রয়োজনীয়তা কী?

ইতিহাস পাঠ করার আগে আমাদের প্রত্যেকেরই জানা প্রয়োজন ইতিহাস কী, ইতিহাসের প্রকৃতি কীরূপ; আবার পাঠ্য বিষয় হিসেবে ইতিহাসের ভূমিকা কী। পাশাপাশি কোনো নির্দিষ্ট কালের এবং নির্দিষ্ট দেশের ইতিহাস জানার সাথে সমসাময়িক প্রাকৃতিক অবস্থা এবং পরিবেশ সম্পর্কেও ধারণা নেওয়া প্রয়োজন। এই নিবন্ধে ইতিহাসের সংজ্ঞা, বিষয়বস্তু, উপাদান এবং প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হলো।

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার নীতি বা মূলনীতি কয়টি ও কী কী?

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনা একটি বাংলা শব্দ যার ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো...

পরিবার কাকে বলে? পরিবারের সংজ্ঞা, ধারণা, প্রকারভেদ, কার্যাবলি ও গুরুত্ব কী?

আমরা জন্ম থেকেই পরিবারের সাথে পরিচিত। আমরা নিশ্চয়ই অবগত...

শিখন-শেখানো পদ্ধতি ও কৌশল

পাঠকে ফলপ্রসূ করার জন্য শিক্ষক পরিস্থিতি অনুসারে একাধিক পদ্ধতি ও কৌশলের সংমিশ্রণে নিজের মতো করে পাঠ পরিচালনা করতে পারেন। পাঠের সাফল্য নির্ভর করে শিক্ষকের বিচক্ষণতা এবং বিষয়জ্ঞান ও শিখন পদ্ধতির যথাযথ প্রয়োগের উপর।

পাঠ পরিকল্পনা: পাঠ পরিকল্পনার সংজ্ঞা এবং হার্বার্টের পঞ্চসোপান ও আধুনিক ত্রিসোপান

শিক্ষার্থীরা কী শিখবে, কীভাবে তা শেখানো হবে এবং কীভাবে শিখন মূল্যায়ন করা হবে সে সম্পর্কে শিক্ষকের দৈনন্দিন নির্দেশনা হলো পাঠ পরিকল্পনা