বুধবার, ডিসেম্বর ১, ২০২১

গর্ভাবস্থায় নারীর বৃত্তাকার লিগামেন্ট ব্যাথা

বৃত্তাকার লিগামেন্ট ব্যাথা হলো পেটের এক বা উভয় পাশে একটি তীক্ষ্ণ ব্যাথা যা খুব অল্প সময় স্থায়ী হয়।

বৃত্তাকার লিগামেন্ট ব্যাথা বা রাউন্ড লিগামেন্ট পেইন (Round Ligament Pain) হলো পেটের এক বা উভয় পাশে একটি তীক্ষ্ণ ব্যাথা। এ ধরণের ব্যাথা খুব অল্প সময়ের জন্য হতে পারে আবার মৃদু অস্বস্তিতেও ফেলতে পারে।

বৃত্তাকার লিগামেন্ট ব্যাথা গর্ভাবস্থায় খুব সাধারণ একটি ঘটনা। একজন গর্ভবতী নারী এ ধরণের ব্যাথা তার গর্ভধারণের তিন মাস সময় থেকে অনুভব করতে পারেন। গর্ভাবস্থায় এ ব্যাথা যে একই সাথে পেটের দুই দিকে অনুভব হবে ঠিক তা নয়, বেশিরভাগ সময় এক দিকেই হয়।

শ্রোণীচক্র বা পেলভিস (pelvis) এ দুইটি বৃত্তাকার লিগামেন্ট রয়েছে যা জরায়ুর উভয় পাশে থাকে। গর্ভাবস্থায় নারীর জরায়ুর আকার বৃদ্ধি পাওয়ার সাথে সাথে এর সাথে মানিয়ে নেওয়ার জন্য বা একে সাপোর্ট করার জন্য জন্য বৃত্তাকার লিগামেন্টগুলোও প্রসারিত এবং ঘন হয়। এই ধরণের পরিবর্ত সংঘটিত হবার কারণে মাঝে মধ্যে ব্যাথা হয়। এ প্রকৃতির ব্যাথা খুবই অস্বস্তিকর হলে সাধারণত এতে কোনো ক্ষতি হয় না।

কখন এই ব্যাথা অনুভূত হয়?

বৃত্তাকৃতির ব্যাথা তখনই কোনো গর্ভবতী নারী অনুভব করতে পারেন যখন তার শারীরিক মুভমেন্ট ঘটে। যেমন, কাশি দিলে, বিছানায় গড়াগড়ি দিলে, হাটলে, দাঁড়ানো থেকে বসলে কিংবা বসা থেকে দাঁড়ালে এ ব্যাথা অনুভুতব হতে পারে। এরকম মুভমেন্ট যত বেশি হবে, ব্যাথাও তত বেশি অনুভূত হতে পারে।

এই বৃত্তাকার লিগামেন্ট ব্যাথা কুচকির ঠিক ভিতর থেকে শুরু হয় এবং নিতম্বের উপরের উভয় দিকে ছড়িয়ে পড়ে।

গর্ভাকালীন প্রসব ব্যাথা থেকে বৃত্তাকার লিগামেন্ট ব্যাথা কীভাবে আলাদা করা যায়?

বৃত্তাকার লিগামেন্টে তীক্ষ্ণ কিংবা ঝাঁকুনির মত অনুভূতি খুব বেশিক্ষণ স্থায়ী হয় না। মুভমেন্ট বা অবস্থান পরিবর্তন করতে যে কয়েক সেকেন্ড সময় লাগে তার চেয়ে বেশি সময় ধরে এটি স্থায়ী হয় না।

গর্ভাবস্থায় পেটে ব্যাথা হলে কখন ডাক্তারের কাছে যেতে হবে?

গর্ভাবস্থায় যে-কোনো সময় পেটে ব্যাথা অব্যাহত থাকলে আপনি ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে, যেমন-

  • মারাত্মক ব্যাথা বা ক্র্যাম্পিং হলে
  • এক ঘন্টায় চারবারের বেশি সংকোচনের (ব্যাথা অনুভুত না হলেও) বা দীর্ঘক্ষণ ধরে সংকোচন থাকলে
  • পিঠের তলদেশে ব্যাথা (বিশেষত যদি আপনার পিছনে ব্যাথা না থাকে) বা পেলভিক অঞ্চলে চাপ বৃদ্ধি (এমন অনুভূতি যেন শিশুটি চাপ দিচ্ছে) পেলে
  • যোনি থেকে রক্তপাত, দাগ দেখা বা যোনি স্রাবের ধরণ বা পরিমাণে পরিবর্তন
  • জ্বর, সর্দি, মূর্ছা বা বমি বমি ভাব এবং বমি বমিভাব
  • প্রস্রাব করার সময় ব্যাথা বা জ্বালাপোড়া

গর্ভাবস্থায় বৃত্তাকার লিগামেন্ট ব্যাথা কমাতে কী করণীয়?

বৃত্তাকার লিগামেন্ট ব্যাথার অস্বস্তি হ্রাস করতে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুসরণ করতে হবে। এছাড়া নিম্নলিখিত পরামর্শও অনুসরণ করা যেতে পারে।

  • মুভমেন্ট বা চলাচল বা শারীরিক সঞ্চালন বন্ধ করে বিশ্রাম নেওয়া যেতে পারে
  • এ সময় মেরুদণ্ড ও কাঁধ যথাযম্ভব সোজা রাখার চেষ্টা করক যেতে পারে
  • যেভাবে চলাচল করলে ব্যাথা বাড়ে তেমন চলাচল পরিহার করা যেতে পারে
  • মুভমেন্টের গতি কমিয়ে দেওয়া যেতে পারে
  • আঙুলের সাহায্যে ধীরে ধীরে ব্যাথার জায়গাটি ম্যাসাজ করা যেতে পারে
  • উষ্ণ কিছু ব্যবহার করা যেতে পারে এবং উষ্ণ পানিতে গোসল করতে হবে
  • গর্ভাবস্থার উপযোগী পোশাক পরিধান করতে হবে।
জারিন তাসনিম
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং স্বাধীন লেখক।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন

এই বিভাগের সাম্প্রতিক নিবন্ধ