রবিবার, নভেম্বর ২৭, ২০২২

ডিজিটাল লোন: ডিজিটাল লোন অ্যাপ কী এবং এর সুবিধা ও অসুবিধা

ডিজিটাল লোন অ্যাপ ব্যাবহার করে ঋণ প্রদানকারী ব্যাংক বা আর্থিক সংস্থার নির্দিষ্ট কিছু অংশীদারদের নিকট থেকে পণ্য বা সেবা ক্রয় করা যায়। ডিজিটাল লোন অ্যাপের মাধ্যমে ইস্যুকৃত ঋণের সুদ বা ব্যাংকের মুনাফার হার সাধারণ ঋণের চেয়ে তুলনামূলকভাবে বেশি হয়ে থাকে।

কার অর্থের প্রয়োজন নেই? মাঝেমধ্যেই আমাদের জীবনে এমন কিছু ঘটনা ঘটে যার কারণে প্রায়শই বিভিন্ন খাতে খরচ করতে হয়। সব সময় যে আমরা প্রয়োজনে খরচ করি তা নয়, অপ্রয়োজনেও আমরা অনেক সময় হাতখুলে খরচ করি। চলার পথে আমরা বিভিন্নভাবে বিভিন্নখাতে খরচ করি এটি যেমন সত্য, তেমনই সত্য হলো সবার পকেটে সব সময় টাকা থাকে না। আর এ জন্যই বহু লোক সাময়িকভাবে আর্থিক প্রয়োজন মেটাতে নিয়ে থাকেন ঋণ। ঋণ গ্রহণ ও প্রদানের মাধ্যম হিসেবে সর্বশেষ মাধ্যম হলো ডিজিটাল লোন (Digital Loan)। ডিজিটাল লোন গ্রহণ ও প্রদান সংক্রান্ত প্রক্রিয়াকরণ সম্পন্ন করা হয় সম্পূর্ণভাবে ডিজিটাল মাধ্যমে মোবাইল অ্যাপ বা ওয়েব ব্রাউজার ব্যবহার করে।

ডিজিটাল লোন (Digital Loan)

আর্থিক প্রযুক্তি বা ফিন্যানশিয়াল টেকনোলজি ব্যবহার করে যখন কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠান বা ব্যাংক গ্রাহকদের ঋণ প্রদান করে যার প্রক্রিয়াকরণ সম্পূর্ণভাবে ডিজিটাল মাধ্যমে ওয়েব ব্রাউজার বা মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে করা হয় তাকে ডিজিটাল ঋণ বলা হয়।

উল্লেখ্য, ‘আর্থিক প্রযুক্তি’র ইংরেজি ‘ফিন্যানশিয়াল টেকনোলজি’ (Financial Technology)-কে সংক্ষেপে ‘ফিনটেক’ (Fintech) বলা হয়।

ডিজিটাল লোন অ্যাপ কী?

ডিজিটাল লোন অ্যাপ হলো এমন এক প্রকারের মোবাইল বা কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন যা ব্যবহার করে কোনো গ্রাহক সহজেই অল্প সময়ের মধ্যে কোনো ব্যাংক বা ঋণ প্রদানকারী সংস্থার কাছে ঋণের জন্য আবেদন করতে পারে এবং তাৎক্ষণিকভাবে ঋণ প্রাপ্তির অনুমোদন লাভসহ ঋণের অর্থ পায়।

লোন অ্যাপ ব্যাবহার করে লোন প্রদানকারী ব্যাংক বা আর্থিক সংস্থার নির্দিষ্ট কিছু অংশীদারদের নিকট থেকে পণ্য বা সেবা ক্রয় করা যায়। লোন অ্যাপের মাধ্যমে ইস্যুকৃত ঋণের সুদ বা ব্যাংকের মুনাফার হার সাধারণ ঋণের চেয়ে তুলনামূলকভাবে বেশি হয়ে থাকে।

ডিজিটাল লোন অ্যাপের সুবিধা

  • ব্যাংক বা ঋণ প্রদানকারী আর্থিক সংস্থার কোনো শাখায় স্বশরীরে উপস্থিত না হয়ে ঋণের আবেদন, ঋণ গ্রহণ ও ঋণ পরিশোধ করা যায়।
  • অল্প সময়ের মধ্যে ঋণের আবেদন করে তাৎক্ষণিকভাবেই অনুমোদন পাওয়া সম্ভব।
  • সম্পূর্ণ ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় লেনদেন।
  • ঋণ প্রদানকারী নির্দিষ্ট সংস্থার অংশীদার প্রতিষ্ঠান থেকে ঝামেলা ছাড়াই পণ্য বা সেবা ক্রয় করা যায়।

ডিজিটাল লোন অ্যাপের অসুবিধা

  • লোন অ্যাপের মাধ্যমে ইস্যুকরা ঋণের বিপরীতে তুলনামূলক বেশি পরিমাণে সুদ বা মুনাফা নেওয়া হয়।
  • লোন অ্যাপের মাধ্যমে গ্রহণ করা ঋণের গ্রাহক নির্দিষ্ট শর্ত ও সময় অনুসারে ঋণ পরিশোধে ব্যর্থ হলে তাকে অধিক অঙ্কের জরিমানা প্রদান করতে হয়।
  • সাধারণত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের নির্দিষ্ট অংশীদার ব্যতীত অন্য কোথাও থেকে পণ্য বা সেবা ক্রয় করা যায় না।
  • ব্যাংক ছাড়াও বিশ্বব্যাপী অনেক প্রতিষ্ঠান আছে যারা লোন অ্যাপের মাধ্যমে ঋণ প্রদান করে, যেগুলোর বেশিরভাগই সরকারিভাবে নিবন্ধিত নয়, এ কারণে সাধারণ মানুষ প্রতারণার ফাঁদে পড়ার আশঙ্কা থাকে।
  • অনিবন্ধিত লোন অ্যাপ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত ফোটো, কনট্যাক্টস নম্বর চুরি করে নেওয়ার অভিযোগ রয়েছে।
  • এমনকি এই অ্যাপগুলি গ্রাহকদের ব্ল্যাকমেইলিং করে বলেও অভিযোগ।

লোন অ্যাপের মাধ্যমে ঋণ গ্রহণ করা কি নিরাপদ?

বর্তমান ডিজিটাল বিশ্বে গ্রহণের জন্য লোন অ্যাপ নিঃসন্দেহে একটি ভালো পদ্ধতি। তবে একজন গ্রাহককে অবশ্যই ঋণপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠান নির্বাচনে সতর্ক থাকতে হবে। বিশ্বের অনেক দেশেই বর্তমানে প্রচুর পরিমানে ‘ডিজিটাল ঋপ্রদানকারী প্রতিষ্ঠান সৃষ্টি হয়েছে যেগুলোর অধিকাংশই নিবন্ধিত নয়। যে সকল প্রতিষ্ঠান নিবন্ধিত নয় সে সকল প্রতিষ্ঠান থেকে লোন অ্যাপের মাধ্যমে ঋণ গ্রহণ করা অনিরাপদ। তবে নিবন্ধিত কোনো প্রতিষ্ঠান থেকেও যে লোন অ্যাপের মাধ্যমে ঋণ গ্রহণ করলে তা নিরাপদ হবে তাও নিশ্চিত করর ‘নিরাপদ’ বলা যায় না। অনেক সময় সাইবার হামলা বা হ্যাকিং-এর শিকার হয়ে গ্রাহককে বিপদে পড়তে হতে পারে। ভারত, যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশের অনেকেই লোন অ্যাপের মাধ্যমে ঋণ নিয়ে প্রতারিত হয়েছেন।

তবে কারও যদি লোন অ্যাপের মাধমে ঋণ গ্রহণ করতেই হয় তাহলে তিনি যেন কোনো ‘নিবন্ধিত ব্যাংক’ থেকে তা গ্রহণ করেন। যদি কোনো ব্যাংক ‘লোন অ্যাপ’-এর মাধ্যমে ঋণ প্রদান করে তাহলে তা আপনি গ্রহণ করতেই পারেন, এটা নিরাপদ।

মনে রাখবেন, যতই ভালো কোনো ব্যাংকের সাথে আপনার অ্যাকাউন্ট থাক না কেন, আপনি যে-কোনো সময় সাইবার হামলার শিকার হতে পারেন। তবুও বলি, সরকার নিবন্ধিত ব্যাংক বা নিবন্ধিত ব্যাংকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান ছাড়া আর্থিক লেনদেন করা উচিত নয়। লোন অ্যাপের মাধ্যমে ঋণ গ্রহণ করা নিরাপদ যদি তা সরকার নিবন্ধিত ব্যাংক থেকে নেওয়া নয়।

মু. মিজানুর রহমান মিজানhttps://www.mizanurrmizan.info
মু. মিজানুর রহমান মিজান সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, ঢাকায় মাস্টার অব এডুকেশন প্রোগ্রামের শিক্ষার্থী এবং একজন স্বাধীন লেখক। তিনি শিক্ষা গবেষণায় বেশ আগ্রহী।

বিশ্লেষণ-এর সকল লেটেস্ট নিবন্ধ পেতে Google News-এ অনুসরণ করুন

নিচের মন্তব্যের ঘরে সংক্ষেপে লিখুন আপনার মন্তব্য। মন্তব্যের ভাষা যদি প্রকাশযোগ্য হয় তবে তা এখানে

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন

এই বিভাগের অন্যান্য নিবন্ধ

সমাজমাধ্যম

সাম্প্রতিক মন্তব্য

সবচেয়ে জনপ্রিয়
সবচেয়ে জনপ্রিয়

গবেষণা: গবেষণার সংজ্ঞা, ধারণা ও প্রকারভেদ

গবেষণা হলো কোনো কিছু সম্পর্কে জানার জন্য নিয়মতান্ত্রিক ও ধারাবাহিকভাবে অনুসন্ধান প্রক্রিয়া এবং একটি গবেষণা শুধু একটি প্রকারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ না থেকে দুই বা ততোধিক প্রকারের হতে পারে

শিক্ষা কী? শিক্ষার সংজ্ঞা, ধারণা এবং লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

শিক্ষা নিয়ে যারা কথা বলেছেন তাঁরা প্রত্যেকেই নিজের মতো করে ভেবে নিয়েছেন শিক্ষাকে, নিজের মতো করে সংজ্ঞা দিয়েছেন। শিক্ষাবীদ কিংবা মনিষী, যার সংজ্ঞাই দেখা হোক না কেন, খুব একটা সন্তুষ্ট হওয়া যায় না। তাই বলে যাদের হাত ধরে শিক্ষা ও শিক্ষাব্যবস্থা আজ পর্যন্ত এসেছে তাঁদের মতো শিক্ষাবিদ বা মনিষীদের বলে যাওয়া বা লিখে যাওয়া কথাগুলোকে এড়িয়ে চলাও সম্ভব নয়।

মূল্যবোধ কাকে বলে এবং মূল্যবোধের উৎস ও প্রকারভেদ কী?

মূল্যবোধ শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ হচ্ছে Value এটি গঠিত হয়েছে...

পরিবার কাকে বলে? পরিবারের সংজ্ঞা, ধারণা, প্রকারভেদ, কার্যাবলি ও গুরুত্ব কী?

আমরা জন্ম থেকেই পরিবারের সাথে পরিচিত। আমরা নিশ্চয়ই অবগত...

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার সংজ্ঞা, পরিধি এবং গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা

মানব সভ্যতার শুরু থেকেই ব্যবস্থাপনা বিভিন্ন মানব সংগঠনের সাথে...

নেতা ও নেতৃত্ব কাকে বলে? একজন আদর্শ নেতার গুণাবলি কী?

নেতৃত্বের মূল কাজ হলো আওতাভুক্ত ব্যক্তিবর্গকে প্রভাবিত করা, যাতে তারা নেতার নির্দেশ মেনে নেয় ও সে মোতাবেক কাজ করে। 

শিক্ষা: অভীক্ষার সংজ্ঞা এবং বৈশিষ্ট্য

শিক্ষাক্ষেত্রে অভীক্ষা খুবই পরিচিত একটি পদ। যারা শিক্ষাবিজ্ঞান পড়েছেন...

ইতিহাস কাকে বলে? ইতিহাসের বিষয়বস্তু, উপাদান এবং ইতিহাস পাঠের প্রয়োজনীয়তা কী?

ইতিহাস পাঠ করার আগে আমাদের প্রত্যেকেরই জানা প্রয়োজন ইতিহাস কী, ইতিহাসের প্রকৃতি কীরূপ; আবার পাঠ্য বিষয় হিসেবে ইতিহাসের ভূমিকা কী। পাশাপাশি কোনো নির্দিষ্ট কালের এবং নির্দিষ্ট দেশের ইতিহাস জানার সাথে সমসাময়িক প্রাকৃতিক অবস্থা এবং পরিবেশ সম্পর্কেও ধারণা নেওয়া প্রয়োজন। এই নিবন্ধে ইতিহাসের সংজ্ঞা, বিষয়বস্তু, উপাদান এবং প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হলো।

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার নীতি বা মূলনীতি কয়টি ও কী কী?

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনা একটি বাংলা শব্দ যার ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো...

শিখন-শেখানো পদ্ধতি ও কৌশল

পাঠকে ফলপ্রসূ করার জন্য শিক্ষক পরিস্থিতি অনুসারে একাধিক পদ্ধতি ও কৌশলের সংমিশ্রণে নিজের মতো করে পাঠ পরিচালনা করতে পারেন। পাঠের সাফল্য নির্ভর করে শিক্ষকের বিচক্ষণতা এবং বিষয়জ্ঞান ও শিখন পদ্ধতির যথাযথ প্রয়োগের উপর।

অর্থনীতি কাকে বলে? অর্থনীতির সংজ্ঞা, পরিধি বা বিষয়বস্তু কী?

অর্থনীতির ইংরেজি হলো 'ইকোনোমিকস' (Economics); এই ইকোনোমিকস শব্দটি গ্রিক...