সোমবার, আগস্ট ৮, ২০২২

ফুনান— দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার প্রাচীন রাজ্য বা সাম্রাজ্য এবং সংস্কৃতি

ফুনান ছিল প্রাচীন কম্বোডিয়ার প্রথম হিন্দু রাজ্য যা বর্তমান ভিয়েতনাম, থাওল্যান্ড, লায়োস ও কম্বোডিয়ার বিস্তির্ণ অঞ্চল জুড়ে ছিল।

ফুনান কী? ফুনান (Funan) সম্পর্কে জানতে চাওয়া এই প্রশ্নের উত্তরে বেশ কিছু উত্তর দেওয়া সম্ভব এবং যার প্রত্যেকটি উত্তরই বেশ কাছাকাছি বা একটি আরেকটির সাথে সম্পর্কযুক্ত। ফুনান সম্পর্কে ইংরেজিতে পড়ুন এখানে ক্লিক করে

ফুনান শব্দ

‘ফুনান’ শব্দকে অনেক সময় ‘ফানান’ লেখা বা উচ্চারণ করা হয়ে থাকে। কম্বোডিয়া, লায়োস, ভিয়েতনাম ও থাইল্যান্ডের একটি স্থানকে বোঝানোর জন্য চীনা মানচিত্রকার, ভূগোলবিদ এবং লেখকগণ ‘ফুনান’ শব্দটি ব্যবহার করেন।

এই শব্দটির চাইনিজ উচ্চারণ অনেকটে এমন— pnom। ফুনান শব্দটি যদি সত্যিই চাইনিজ pnom হয়ে থাকে তাহলে এর অর্থ ‘পর্বত’।

যেভাবে লেখা হয় ‘ফুনান’—

  • বাংলা: ফুনান বা ফানান
  • English: Funan
  • Chinese: 扶南
  • pinyin: Fúnán
  • Khmer: ហ៊្វូណន, Hvunân [fuːnɑːn];
  • Vietnamese: Phù Nam

ফুনান একটি প্রাচীন রাষ্ট্র নাকি সাম্রাজ্যের নাম?

কম্বোডিয়া দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার একটি দেশ যেখানে কমপক্ষে ৫ হাজার বছরের ইতিহাস রয়েছে। বর্তমান সময়ের কম্বোডিয়াকে চীনের পর্যায়ক্রমিক ইতিহাসে ফুনান নামের অঞ্চল হিসেবে চিহ্নিত করা যায়। এই ফুনান অঞ্চলটি প্রথম থেকে ষষ্ট শতাব্দীতে ইন্দোচীন উপদ্বীপের দক্ষিণতম অংশকে বিবেচনা করা হয়।

ফুনান ছিল প্রাচীন কম্বোডিয়ার প্রথম হিন্দু রাজ্য যা বর্তমান ভিয়েতনাম, থাওল্যান্ড, লায়োস ও কম্বোডিয়ার বিস্তির্ণ অঞ্চল জুড়ে ছিল। ভারত ও চীনের সাথে বাণিজ্যিক সম্পর্ক ছিল ফুনানের, তবে চীনের সাথে একটা সময় খারাপ সম্পর্ক ছিল। কিন্তু ২৪৫ খ্রিষ্টাব্দে ফুনানের রাজার এক বিশেষ উপহার পেয়ে চীন শাসক ফুনানের সাথে চমৎকার সম্পর্কের সূচনা করেন।

প্রত্নতাত্ত্বিক প্রমাণ থেকে দেখা যায় যে, ফুনান মূলত ভারতীয় সংস্কৃতি দ্বারা উল্লেখযোগ্যভাবে প্রভাবিত ছিল। ফুনানের স্থপতি ছিলেন ভারতের কলিঙ্গ রাজ্যে জন্ম নেওয়া কৌণ্ডিণ্য প্রথম নামের এক বণিক তবে ফুনানের প্রথম শাসক ছিলেন তার স্ত্রী রানি সোমা।

চাইনিজরা ফুনানকে একটি সাম্রাজ্য বলে গণ্য করত, এর শাসকদের বলা হতো রাজা। কিন্তু ইতিহাসবিদদের মতে বিশাল অঞ্চল জুড়ে ফুনানের অবস্থান হলেও, এটি শুধুই একটি সাধারণ রাজ্য। ফুনাননকে সাম্রাজ্য হিসেবে মানতে নারাজ বেশিরভাগ ইতিহাসবিদ।

তুলনামূলকভাবে উন্নত এই ফুনানগোষ্ঠী উপকূল এবং নিম্ন মেকং নদী উপত্যকা এবং ব-দ্বীপ অঞ্চলে বাস করত যেখানে তারা ধান ও মাছ চাষ করত এবং গৃহপালিত পশুপালন করতো। ফুনান সভ্যতা ছিল ভারতীয় সভ্যতা ও সংস্কৃতির মাধ্যমে ব্যাপকভাবে প্রভাবিত।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার লৌহযুগ ৫০০ খ্রিস্টপূর্বের দিকে শুরু হয় এবং ফুনান যুগের শেষ পর্যন্ত— প্রায় ৫০০ এডি অবধি স্থায়ী হয়। এটি ভারত ও দক্ষিণ এশিয়ার সাথে টেকসই সামুদ্রিক বাণিজ্য এবং আর্থ-রাজনৈতিক মিথস্ক্রিয়ার দৃঢ় প্রমাণ সরবরাহ করে।

প্রথম শতাব্দীতে গড়ে ওঠা ফুনান সাম্রাজ্যের জনগোষ্ঠীর মধ্যে এক ধরনের জটিল এবং সুসংগঠিত মেলবন্ধনের সৃষ্টি হয় যা বিশেষ এক ধর্মীয় চিন্তার বিকাশে ভূমিকা রাখে। ফুনানের লোকেরা যেভাবে কথা বলতো বা ভাব বিনিময় করত তা বর্তমান সময়ের ভাষার সাথেও বেশ সম্পর্কিত বলে মনে করেন অনেক গবেষক।

আনুমানিক ৬৮ খ্রিষ্টাব্দে ফুনান প্রতিষ্ঠিত হয় এবং এর পতন হয় ৫৫০ খ্রিষ্টাব্দে। ফুনান রাজ্য বা সাম্রাজ্যের পতনের পর এ বিশাল অঞ্চল চেনলা (Chenla) বা ঝেনলা (Jhenla) নামে পরিচিতি পায়।

ফুনান শাসকদের তালিকা

ফুনান রাজ্য বা ফুনান সাম্রাজ্যের যে সকল শাসকদের নাম জানা যায় তাদের মধ্যে কয়েকজন উল্লেখযোগ্য শাসকের নাম নিচে উল্লেখ করা হলো—

  1. নিং নিক বা রানি সোমা (Neang Neak)— শাসন করেন ১ম বা ২য় শতকে
  2. প্রে থং (Preah Thong)— শাসন করেন ১ম বা ২য় শতকে
  3. হুন পানহুয়াং (Hun Pan-huang)— শাসন করেন ২য় শতকে
  4. পান-পান (Pan-Pan)— শাসন করেন ২য় শতকের শেষের দিকে 
  5. শ্রেই মেয়ারা বা ফান শিমান    (Srei Meara/Fàn Shīmàn)— শাসন করেন ৩য় শতকের শুরুতে
  6. ফান জিনশেং     (Fàn Jīnshēng)— শাসনের সময় জানা যায়নি
  7. ফান ঝান    (Fàn Zhān) (范旃)— শাসন করেন ২৩০ খ্রিষ্টাব্দ থেকে সম্ভবত ২৪৩ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত
  8. ফান শাং (Fàn Cháng)— শাসন করেন ২৪৩ খ্রিষ্টব্দের পরবর্তীতে
  9. ফান শুন (Fàn Xún)— শাসন করেন    ২৪৫ বা ২৫০ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ২৮৭ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত
  10. চন্দনা বা ঝানতান (Candana/Zhāntán)— সিংহাসনে বসেন ৩৫৭ খ্রিষ্টাব্দে
  11. কৌণ্ডিন্য (Kaundinya/Qiáochénrú— সিংহাসনে বসেন    ৪২০ খ্রিষ্টাব্দে
  12. প্রথম শ্রী ইন্দিরাবর্মণ (Sri Indravarman I)— শাসন করেন ৪৩০ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ৪৪০ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত
  13. জয়বর্মণ কৌণ্ডিন্য (Jayavarman Kaundinya or    Qiáochénrú Shéyébámó)— শাসন করেন ৪৮৪ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ৫১৪ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত
  14. গুণবর্মণ (Guṇavarman)— ক্ষমতায় বসেন ৫১৪ খ্রিষ্টাব্দে
  15. রুদ্রবর্মণ (Rudravarman or Liútuóbámó)— শাসন করেন ৫১৪ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ৫৪৫ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত

ফুনানের শেষ রাজা রুদ্রবর্মণ ছিলেন নাকি অন্য কেউ ছিলেন সে ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ফুনান ছিল একটি হিন্দু সংস্কৃতি

ফুনান একটি দেশ, রাষ্ট্র, সাম্রাজ্য বা অঞ্চলের নাম যেমন সত্য তেমনই সত্য হলো যে, ফুনান  ছিল দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলে গড়ে ওঠা এক ধরনের প্রাচীন আঞ্চলিক হিন্দু সংস্কৃতির নাম। বলা হয়, এই সংস্কৃতি গড়ে ওঠে চীন-কম্বোডিয়া অঞ্চলের সাথে ভারতের বাণিজ্যিক সম্পর্ককে ঘিরে। এই ফুনান সংস্কৃতি পশ্চিমে ইন্দোস্ফিয়ারের সামুদ্রিক ব্যবসায়িক অংশীদারদের সাথে দীর্ঘায়িত আর্থ-সামাজিক যোগাযোগে ভূমিকা রাখে।

শেষকথা

ফুনান হলো কম্বোডিয়ার এমন একটি প্রাচীন সভ্যতা বা রাষ্ট্র যাকে হিন্দু সভ্যতা বা রাষ্ট্র হিসেবে চিহ্নিত করা যায়। বৌদ্ধপ্রধান কম্বোডিয়ার প্রথম হিন্দু রাষ্ট্র হলো ফুনান। এই অঞ্চলে হিন্দুধর্ম ও হিন্দু সংস্কৃতু বিস্তারে ভারতের সাথে বাণিজ্যিক সম্পর্কের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ককে কারণ হিসেবে দেখানো যায়। ফুনান একটি সংস্কৃতিরও নাম। কিন্তু এই ফুনানকে একটি রাষ্ট্র নাকি সভ্যতা বলে গণ্য করা হবে সে ব্যাপারে আমার ব্যক্তিগত মতামত নেই, কারণ এ সংক্রান্ত জ্ঞান আমার খুবই কম।

কৃতজ্ঞতাস্বীকার

  • Britannica
  • Center for Khmer Studies
  • History of Cambodia by Justin Cornfield (Book)
  • Wikipedia

নিবন্ধটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান আমাদেরকে। নিচের মন্তব্যের ঘরে সংক্ষেপে লিখুন আপনার মন্তব্য। মন্তব্যের ভাষা যদি প্রকাশযোগ্য হয় তবে তা এখানে প্রকাশিত হবে। আর যদি আপনার কোনো অপ্রকাশিত নিবন্ধ বিশ্লেষণ-এ প্রকাশ করতে চান তাহলে নিম্নোক্ত ইমেইলে তা পাঠিয়ে দিন নিজের নাম, পরিচয় ও ছবিসহ।

ইমেইল: [email protected]

মু. মিজানুর রহমান মিজানhttps://www.mizanurrmizan.info
মু. মিজানুর রহমান মিজান সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, ঢাকায় মাস্টার অব এডুকেশন প্রোগ্রামের শিক্ষার্থী এবং একজন স্বাধীন লেখক। তিনি শিক্ষা গবেষণায় বেশ আগ্রহী।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন

এই বিভাগের অন্যান্য নিবন্ধ

লেটেস্ট আপডেট পেতে গুগল নিউজে ফলো করুন

সমাজমাধ্যম

সাম্প্রতিক মন্তব্য

সবচেয়ে জনপ্রিয়
সবচেয়ে জনপ্রিয়

গবেষণা: গবেষণার সংজ্ঞা, ধারণা ও প্রকারভেদ

গবেষণা হলো কোনো কিছু সম্পর্কে জানার জন্য নিয়মতান্ত্রিক ও ধারাবাহিকভাবে অনুসন্ধান প্রক্রিয়া এবং একটি গবেষণা শুধু একটি প্রকারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ না থেকে দুই বা ততোধিক প্রকারের হতে পারে

শিক্ষা কী? শিক্ষার সংজ্ঞা, ধারণা এবং লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

শিক্ষা নিয়ে যারা কথা বলেছেন তাঁরা প্রত্যেকেই নিজের মতো করে ভেবে নিয়েছেন শিক্ষাকে, নিজের মতো করে সংজ্ঞা দিয়েছেন। শিক্ষাবীদ কিংবা মনিষী, যার সংজ্ঞাই দেখা হোক না কেন, খুব একটা সন্তুষ্ট হওয়া যায় না। তাই বলে যাদের হাত ধরে শিক্ষা ও শিক্ষাব্যবস্থা আজ পর্যন্ত এসেছে তাঁদের মতো শিক্ষাবিদ বা মনিষীদের বলে যাওয়া বা লিখে যাওয়া কথাগুলোকে এড়িয়ে চলাও সম্ভব নয়।

মূল্যবোধ কাকে বলে এবং মূল্যবোধের উৎস ও প্রকারভেদ কী?

মূল্যবোধ শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ হচ্ছে Value এটি গঠিত হয়েছে...

শিক্ষা: অভীক্ষার সংজ্ঞা এবং বৈশিষ্ট্য

শিক্ষাক্ষেত্রে অভীক্ষা খুবই পরিচিত একটি পদ। যারা শিক্ষাবিজ্ঞান পড়েছেন...

পরিবার কাকে বলে? পরিবারের সংজ্ঞা, ধারণা, প্রকারভেদ, কার্যাবলি ও গুরুত্ব কী?

আমরা জন্ম থেকেই পরিবারের সাথে পরিচিত। আমরা নিশ্চয়ই অবগত...

নেতা ও নেতৃত্ব কাকে বলে? একজন আদর্শ নেতার গুণাবলি কী?

নেতৃত্বের মূল কাজ হলো আওতাভুক্ত ব্যক্তিবর্গকে প্রভাবিত করা, যাতে তারা নেতার নির্দেশ মেনে নেয় ও সে মোতাবেক কাজ করে। 

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার সংজ্ঞা, পরিধি এবং গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা

মানব সভ্যতার শুরু থেকেই ব্যবস্থাপনা বিভিন্ন মানব সংগঠনের সাথে...

ইতিহাস কাকে বলে? ইতিহাসের বিষয়বস্তু, উপাদান এবং ইতিহাস পাঠের প্রয়োজনীয়তা কী?

ইতিহাস পাঠ করার আগে আমাদের প্রত্যেকেরই জানা প্রয়োজন ইতিহাস কী, ইতিহাসের প্রকৃতি কীরূপ; আবার পাঠ্য বিষয় হিসেবে ইতিহাসের ভূমিকা কী। পাশাপাশি কোনো নির্দিষ্ট কালের এবং নির্দিষ্ট দেশের ইতিহাস জানার সাথে সমসাময়িক প্রাকৃতিক অবস্থা এবং পরিবেশ সম্পর্কেও ধারণা নেওয়া প্রয়োজন। এই নিবন্ধে ইতিহাসের সংজ্ঞা, বিষয়বস্তু, উপাদান এবং প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হলো।

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার নীতি বা মূলনীতি কয়টি ও কী কী?

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনা একটি বাংলা শব্দ যার ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো...

পাঠ পরিকল্পনা: পাঠ পরিকল্পনার সংজ্ঞা এবং হার্বার্টের পঞ্চসোপান ও আধুনিক ত্রিসোপান

শিক্ষার্থীরা কী শিখবে, কীভাবে তা শেখানো হবে এবং কীভাবে শিখন মূল্যায়ন করা হবে সে সম্পর্কে শিক্ষকের দৈনন্দিন নির্দেশনা হলো পাঠ পরিকল্পনা

সুশাসন কী? সুশাসনের ধারণা, সংজ্ঞা ও উপাদান কী?

সুশাসন হলো এক ধরনের শাসন প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে ক্ষমতার...