রবিবার, মে ২২, ২০২২

স্বচ্ছ ভারত অভিযান কী, এর উদ্দেশ্য ও ইতিহাস

২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ই আগস্ট ভারতের স্বাধীনতা দিবসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী স্বচ্ছ ভারত অভিযানের ঘোষণা করেন এবং ঐ বছর ২রা অক্টোবর গান্ধী জয়ন্তী উপলক্ষে এই প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন।

স্বচ্ছ ভারত অভিযান হলো ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দে ভারত সরকার কর্তৃক প্রচলিত একটি জাতীয় প্রকল্প যার মাধ্যমে দেশের ৪০৪১ টি শহরের সড়ক এবং পরিকাঠামোকে পরিষ্করণের ব্যবস্থা করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। ‘স্বচ্ছ ভারত অভিযান’-কে ইংরেজিতে ‘Swachh Bharat Mission’ এবং হিন্দিতে ‘स्वच्छ भारत अभियान’ লেখা ও বলা হয়। ২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ২রা অক্টোবর নয়া দিল্লির রাজঘাট সমাধি পরিসরে স্বচ্ছ ভারত প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক সূচনা করা হয়, সেখানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজেই রাস্তা পরিষ্কার করেন। সেই দিন এই প্রকল্পকে রূপায়িত করতে দেশের প্রায় ত্রিশ লক্ষ সরকারি কর্মচারী এবং ছাত্ররা অংশগ্রহণ করেন।

২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ১৫ই আগস্ট ভারতের স্বাধীনতা দিবসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী স্বচ্ছ ভারত অভিযানের ঘোষণা করেন এবং ঐ বছর ২রা অক্টোবর গান্ধী জয়ন্তী উপলক্ষে এই প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন। এই দিন নয়া দিল্লির রাজঘাট সমাধি পরিসরে আয়োজিত একটি জনসভায় তার ভাষণে তিনি দেশের জনগণকে এই প্রকল্পে সামিল হওয়ার জন্য আবেদন করেন। পরে সেই দিনই তিনি মন্দির মার্গ পুলিশ স্টেশনের একটি গাড়ি রাখার স্থান এবং কনট প্লেসের নিকটে বাল্মীকি বস্তি পরিষ্কার করার কাজে স্বয়ং অংশগ্রহণ করেন। ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় প্রতি ভারতীয়কে বছরে একশত ঘণ্টা এই প্রকল্পের জন্য ব্যয় করার অনুরোধ জানান।

স্বচ্ছ ভারত অভিযানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

২০১৯ খ্রিষ্টাব্দের ২রা অক্টোবরে মহাত্মা গান্ধীর দেড়শততম জন্মবার্ষিকীর মধ্যে এই প্রকল্প সম্পন্ন করার লক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। এই প্রকল্পের জন্য ₹৬২,০০০ কোটি (US$ ৮.৩৭ বিলিয়ন) অর্থ খরচ হবে বলে মনে করা হয়েছে। এই যোজনা সংকীর্ণ রাজনীতির উর্দ্ধে এবং জাতীয়তাবাদের দ্বারা অনুপ্রাণিত বলে বর্ণনা করা হয়েছে।

২০১৪ খ্রিষ্টাব্দের ২রা অক্টোবর রাষ্ট্রপতি ভবন থেকে ‘স্বচ্ছ ভারত দৌড়’ অনুষ্ঠিত হয়। ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় পতাকা নেড়ে এই দৌড় শুরু করেন এবং প্রায় ১৫০০ জন মানুষ এতে অংশগ্রহণ করেন।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন

এই বিভাগের অন্যান্য নিবন্ধ

সমাজমাধ্যম

সবচেয়ে জনপ্রিয়
সবচেয়ে জনপ্রিয়

শিক্ষা কী? শিক্ষার সংজ্ঞা, ধারণা এবং লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

শিক্ষা নিয়ে যারা কথা বলেছেন তাঁরা প্রত্যেকেই নিজের মতো করে ভেবে নিয়েছেন শিক্ষাকে, নিজের মতো করে সংজ্ঞা দিয়েছেন। শিক্ষাবীদ কিংবা মনিষী, যার সংজ্ঞাই দেখা হোক না কেন, খুব একটা সন্তুষ্ট হওয়া যায় না। তাই বলে যাদের হাত ধরে শিক্ষা ও শিক্ষাব্যবস্থা আজ পর্যন্ত এসেছে তাঁদের মতো শিক্ষাবিদ বা মনিষীদের বলে যাওয়া বা লিখে যাওয়া কথাগুলোকে এড়িয়ে চলাও সম্ভব নয়।

গবেষণা: গবেষণার সংজ্ঞা, ধারণা ও প্রকারভেদ

গবেষণা হলো কোনো কিছু সম্পর্কে জানার জন্য নিয়মতান্ত্রিক ও ধারাবাহিকভাবে অনুসন্ধান প্রক্রিয়া এবং একটি গবেষণা শুধু একটি প্রকারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ না থেকে দুই বা ততোধিক প্রকারের হতে পারে

মূল্যবোধ কাকে বলে এবং মূল্যবোধের উৎস ও প্রকারভেদ কী?

মূল্যবোধ শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ হচ্ছে Value এটি গঠিত হয়েছে...

নেতা ও নেতৃত্ব কাকে বলে? একজন আদর্শ নেতার গুণাবলি কী?

নেতৃত্বের মূল কাজ হলো আওতাভুক্ত ব্যক্তিবর্গকে প্রভাবিত করা, যাতে তারা নেতার নির্দেশ মেনে নেয় ও সে মোতাবেক কাজ করে। 

শিক্ষা: অভীক্ষার সংজ্ঞা এবং বৈশিষ্ট্য

শিক্ষাক্ষেত্রে অভীক্ষা খুবই পরিচিত একটি পদ। যারা শিক্ষাবিজ্ঞান পড়েছেন...

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার সংজ্ঞা, পরিধি এবং গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা

মানব সভ্যতার শুরু থেকেই ব্যবস্থাপনা বিভিন্ন মানব সংগঠনের সাথে...

ইতিহাস কাকে বলে? ইতিহাসের বিষয়বস্তু, উপাদান এবং ইতিহাস পাঠের প্রয়োজনীয়তা কী?

ইতিহাস পাঠ করার আগে আমাদের প্রত্যেকেরই জানা প্রয়োজন ইতিহাস কী, ইতিহাসের প্রকৃতি কীরূপ; আবার পাঠ্য বিষয় হিসেবে ইতিহাসের ভূমিকা কী। পাশাপাশি কোনো নির্দিষ্ট কালের এবং নির্দিষ্ট দেশের ইতিহাস জানার সাথে সমসাময়িক প্রাকৃতিক অবস্থা এবং পরিবেশ সম্পর্কেও ধারণা নেওয়া প্রয়োজন। এই নিবন্ধে ইতিহাসের সংজ্ঞা, বিষয়বস্তু, উপাদান এবং প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হলো।

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার নীতি বা মূলনীতি কয়টি ও কী কী?

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনা একটি বাংলা শব্দ যার ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো...

পরিবার কাকে বলে? পরিবারের সংজ্ঞা, ধারণা, প্রকারভেদ, কার্যাবলি ও গুরুত্ব কী?

আমরা জন্ম থেকেই পরিবারের সাথে পরিচিত। আমরা নিশ্চয়ই অবগত...

শিখন-শেখানো পদ্ধতি ও কৌশল

পাঠকে ফলপ্রসূ করার জন্য শিক্ষক পরিস্থিতি অনুসারে একাধিক পদ্ধতি ও কৌশলের সংমিশ্রণে নিজের মতো করে পাঠ পরিচালনা করতে পারেন। পাঠের সাফল্য নির্ভর করে শিক্ষকের বিচক্ষণতা এবং বিষয়জ্ঞান ও শিখন পদ্ধতির যথাযথ প্রয়োগের উপর।

পাঠ পরিকল্পনা: পাঠ পরিকল্পনার সংজ্ঞা এবং হার্বার্টের পঞ্চসোপান ও আধুনিক ত্রিসোপান

শিক্ষার্থীরা কী শিখবে, কীভাবে তা শেখানো হবে এবং কীভাবে শিখন মূল্যায়ন করা হবে সে সম্পর্কে শিক্ষকের দৈনন্দিন নির্দেশনা হলো পাঠ পরিকল্পনা