বুধবার, অক্টোবর ৫, ২০২২

সেন্টিনেলিজ, আন্দামান দ্বীপপুঞ্জে হাজার বছর ধরে বিচ্ছিন্ন রহস্যময় জাতি

আন্দামান দ্বীপের সেন্টিনেলিজ নামের এই রহস্যময় আদিবাসী গোত্র সম্পর্কে সত্তরের দশক থেকে অনুসন্ধান শুরু করেছিলেন ভারতের টি. এন. পন্ডিত নামের একজন গবেষক এবং তাঁর সহকর্মীরা।

ভারতের শাসনাধীন আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ (Andaman and Nicobar Islands) সম্পর্কে সকলেই জানেন। এই দ্বীপের সৌন্দর্য, ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ইত্যাদি সম্পর্কে নানান রকমের তথ্য পাওয়া যায়। রহস্য দিয়ে ঘেরা এই আন্দামান-নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে এক অদ্ভুত ও রহস্যময় জাতি আছে যারা এই আধুনিক বিশ্ব থেকে একদমই বিচ্ছিন্ন। আন্দামান দ্বীপপুঞ্জের অন্তর্ভুক্ত সেন্টিনেল দ্বীপে বসবাসরত অদ্ভুত এই জাতির নাম হলো সেন্টিনেলিজ (Sentinelese)।

কেমন জাতি আন্দামান দ্বীপপুঞ্জের সেন্টিনেলিজ?

ভারতের আন্দামান দ্বীপপুঞ্জের একটি প্রত্যন্ত দ্বীপে ৬০ হাজার বছরের বেশি সময় ধরে সবার অগোচরে বসবাস করছে একটি আদিবাসী গোত্র, সেন্টিনেল দ্বীপে বসবাসকারী এই গোত্রের মানুষজনকে ডাকা হয় সেন্টিনেলিজ নামে। সেন্টিনেলিজিরা কাপড় পরে না। এই গোত্রটি সম্পর্কে খুবই কম জানা গেছে। আন্দামান-নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের মানুষের নিকট এক প্রচলিত বিশ্বাস ছিল যে, সেন্টিনেল দ্বীপের বাসিন্দারা হলো প্রকৃতপক্ষে পাঠান দণ্ডপ্রাপ্তরা, যারা ব্রিটিশ কারাগার থেকে পালিয়ে দ্বীপটিতে লুকিয়ে রয়েছে। উল্লেখ্য, পাঠান হলো আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের একটি গোত্র।

আন্দামান দ্বীপের সেন্টিনেলিজ নামের এই রহস্যময় আদিবাসী গোত্র সম্পর্কে সত্তরের দশক থেকে অনুসন্ধান শুরু করেছিলেন ভারতের টি. এন. পন্ডিত নামের একজন গবেষক এবং তাঁর সহকর্মীরা। ১৯৯১ সালে টি. এন. পণ্ডিত তাঁর দলকে নিয়ে সেন্টিনেলিজ জাতি সম্পর্কে অনুসন্ধানে কিছুটা সাফল্য লাভ করেন, তবে পুরোপুরি জানতে পারেননি। জনাব পণ্ডিত সেখানে সেন্টিনেলিজদের কাছাকাছি যাওয়ার জন্য বেশ কিছু কৌশল অবলম্বন করেছিলেন। যেমন, তাদের জন্য শুকর ও নারিকেল উপহার হিসেবে নিয়ে যাওয়া, ভাষা ও অঙ্গভঙ্গি বোঝার জন্য পার্শ্ববর্তী দ্বীপের কিছু লোকজন নিয়ে যাওয়া ইত্যাদি। টি. এন. পণ্ডিত ও তাঁর দলের উপহার নারিকেল গ্রহণ করেছিল কিন্তু শূকর মেরে ফেলে পুতে দেয়। তবে এই গবেষকদলের কেউই দ্বীপে ওঠার অনমতি পায়নি। আন্দামান দ্বীপে কাপড় বিহীন এই সেন্টিনেলিজ গোত্র সম্পর্কে এখন এরকম উপহার দেওয়ার মাধ্যমে গবেষণা কার্যক্রম বাতিল করে দিয়েছে ভারতের সরকার। 

টি. এন. পণ্ডিতের দেওয়া নারিকেল সংগ্রহে ব্যস্ত সেন্টিনেলিজ সদস্যরা
টি. এন. পণ্ডিতের দেওয়া নারিকেল সংগ্রহে ব্যস্ত সেন্টিনেলিজ সদস্যরা

সেন্টিনেলিজরা খুব লম্বাও নয়, খুব খাটোও নয়। তারা সব সময় তীর ধনুক বহন করে। এই আদিবাসী গোত্রের লোকজন তীর ধনুক দিয়ে মাছ শিকার করে। বুনো শুকর, শিকড়, বনের ফলমূল আর মধু তাদের প্রধান খাবার। তবে সেন্টিনেলিজ জাতির লোকেরা সাগরে চলাচলকারী লোকজনের কাছে পরিচিত নন। এসব লোকের তীর-ধনুক বহন করার আরেকটি কারণ হলো যাতে বাইরের কেউ তাদের দ্বীপে প্রবেশ না করতে পারে। নিজেদের এলাকার ব্যাপারে এই বাসিন্দারা খুবই রক্ষণশীল এবং বাইরের কাউকে পেলেই তারা আক্রমণ করে থাকে।

২০০৬ সালে দুই জন জেলে উত্তর সেন্টিনেল দ্বীপের কাছাকাছি গেলে আদিবাসীদের হামলায় নিহত হয়। ২০০৪ সালের সুনামির পর যখন ভারতীয় কর্মকর্তারা দ্বীপটির ওপর আকাশ থেকে জরিপ করার চেষ্টা করে, তখন দ্বীপের একজন বাসিন্দা তীর ছুড়ে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত করার চেষ্টা চালায়।

বর্ণিল ইতিহাস

আন্দামান দ্বীপপুঞ্জে মূলত চারটি আফ্রিকার উপজাতি গোত্র বাস করে। গ্রেট আন্দামানিজ, অনেজ, জারাওয়া এবং সেন্টিনেলিজ। নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে বাস করে দুইটি মঙ্গোলয়েড গোত্র-শোম্পেন এবং নিকোবারিজ।

ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসকরা ১৮৫৭ সালে সিপাহী বিদ্রোহের পর এই দ্বীপে একটি কারা কলোনি স্থাপন করে, যেখানে বন্দীদের আটকে রাখা হতো। কিছুদিন পরে স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গেই তাদের লড়াই শুরু হয়ে যায়।

ব্রিটিশ সৈন্যবাহিনী বাহিনীর সঙ্গে গ্রেটার আন্দামালিজ বাহিনীর সঙ্গে প্রথম লড়াই হয় ১৮৫৯ সালে, যার ফলাফল সহজেই ধারণা করা যেতে পারে।

যুদ্ধ এবং রোগের বিস্তারের কারণে স্থানীয় গোত্রগুলোয় দ্রুত জনসংখ্যা কমতে শুরু করে। তবে সেন্টিনেলরা বাস করতো একটি দূরের দ্বীপে, ফলে এই দ্বীপের বাসিন্দা ঔপনিবেশিক শাসনের আওতার বাইরে থেকে যায়।

সেন্টিনেলিজদের সহিংসতা

টি. এন. পণ্ডিতের অনুসন্ধানে পাওয়া যায়, সেন্টিনেলিজদের সহিংসতার প্রবণতা এখনো রয়ে গেছে। সেন্টিনেলিজরা একটি শান্তিপ্রিয় জাতি ছিল। তারা মানুষজনের ওপর হামলা করত না। তারা আশেপাশের এলাকায় কখনো যেত না বা কারো সাথে ঝামেলাও তৈরি করতো না। এটা আসলে একটা বিরল ঘটনা। ভারতীয় নৌবাহিনী এবং কোস্ট গার্ড এই এলাকার আশেপাশে নিয়মিত টহল দিতে চায়। কিন্তু তা সত্ত্বেও মাঝেমাঝে এরকম অনুপ্রবেশ ঘটে এবং আমেরিকান এই পর্যটকের অনেক মানুষজন দ্বীপটিতে চলে যান।

টিএন পণ্ডিত মনে করেন, আরও দ্বীপবাসীদের জন্যে যোগাযোগের উদ্যোগ শুরু করা উচিত।

টি. এন. পণ্ডিতের ভাষায়, ”আমাদের অবশ্যই আবারো চেষ্টা করা উচিত এবং তাদের সঙ্গে সীমিত আকারে যোগাযোগ শুরু করা উচিত। কিন্তু তাদের বিরক্ত করা অবশ্যই আমাদের উচিত হবে না। তারা আলাদা থাকতে চাইলে সেটিকে আমাদের সম্মান জানানো উচিত।”

বি. দ্র.: নভেম্বর ২৭, ২০১৮ তারিখে বিবিসির অনলাইন সংস্করণে 'The man who spent decades befriending isolated Sentinelese tribe' নামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে বিবিসি। প্রতিবেদনটি লিখেছিলেন স্বামীনতন নটরজান (Swaminathan Natarajan)। ওই রিপোর্টের আলোকে এই নিবন্ধটি লেখা হয়েছে।

বিশ্লেষণ-এর সকল লেটেস্ট নিবন্ধ পেতে Google News-এ অনুসরণ করুন

নিবন্ধটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান আমাদেরকে। নিচের মন্তব্যের ঘরে সংক্ষেপে লিখুন আপনার মন্তব্য। মন্তব্যের ভাষা যদি প্রকাশযোগ্য হয় তবে তা এখানে প্রকাশিত হবে। আর যদি আপনার কোনো অপ্রকাশিত নিবন্ধ বিশ্লেষণ-এ প্রকাশ করতে চান তাহলে নিম্নোক্ত ইমেইলে তা পাঠিয়ে দিন নিজের নাম, পরিচয় ও ছবিসহ।

ইমেইল: [email protected]

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন

এই বিভাগের অন্যান্য নিবন্ধ

সমাজমাধ্যম

সাম্প্রতিক মন্তব্য

সবচেয়ে জনপ্রিয়
সবচেয়ে জনপ্রিয়

গবেষণা: গবেষণার সংজ্ঞা, ধারণা ও প্রকারভেদ

গবেষণা হলো কোনো কিছু সম্পর্কে জানার জন্য নিয়মতান্ত্রিক ও ধারাবাহিকভাবে অনুসন্ধান প্রক্রিয়া এবং একটি গবেষণা শুধু একটি প্রকারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ না থেকে দুই বা ততোধিক প্রকারের হতে পারে

শিক্ষা কী? শিক্ষার সংজ্ঞা, ধারণা এবং লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

শিক্ষা নিয়ে যারা কথা বলেছেন তাঁরা প্রত্যেকেই নিজের মতো করে ভেবে নিয়েছেন শিক্ষাকে, নিজের মতো করে সংজ্ঞা দিয়েছেন। শিক্ষাবীদ কিংবা মনিষী, যার সংজ্ঞাই দেখা হোক না কেন, খুব একটা সন্তুষ্ট হওয়া যায় না। তাই বলে যাদের হাত ধরে শিক্ষা ও শিক্ষাব্যবস্থা আজ পর্যন্ত এসেছে তাঁদের মতো শিক্ষাবিদ বা মনিষীদের বলে যাওয়া বা লিখে যাওয়া কথাগুলোকে এড়িয়ে চলাও সম্ভব নয়।

মূল্যবোধ কাকে বলে এবং মূল্যবোধের উৎস ও প্রকারভেদ কী?

মূল্যবোধ শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ হচ্ছে Value এটি গঠিত হয়েছে...

পরিবার কাকে বলে? পরিবারের সংজ্ঞা, ধারণা, প্রকারভেদ, কার্যাবলি ও গুরুত্ব কী?

আমরা জন্ম থেকেই পরিবারের সাথে পরিচিত। আমরা নিশ্চয়ই অবগত...

শিক্ষা: অভীক্ষার সংজ্ঞা এবং বৈশিষ্ট্য

শিক্ষাক্ষেত্রে অভীক্ষা খুবই পরিচিত একটি পদ। যারা শিক্ষাবিজ্ঞান পড়েছেন...

নেতা ও নেতৃত্ব কাকে বলে? একজন আদর্শ নেতার গুণাবলি কী?

নেতৃত্বের মূল কাজ হলো আওতাভুক্ত ব্যক্তিবর্গকে প্রভাবিত করা, যাতে তারা নেতার নির্দেশ মেনে নেয় ও সে মোতাবেক কাজ করে। 

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার সংজ্ঞা, পরিধি এবং গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা

মানব সভ্যতার শুরু থেকেই ব্যবস্থাপনা বিভিন্ন মানব সংগঠনের সাথে...

ইতিহাস কাকে বলে? ইতিহাসের বিষয়বস্তু, উপাদান এবং ইতিহাস পাঠের প্রয়োজনীয়তা কী?

ইতিহাস পাঠ করার আগে আমাদের প্রত্যেকেরই জানা প্রয়োজন ইতিহাস কী, ইতিহাসের প্রকৃতি কীরূপ; আবার পাঠ্য বিষয় হিসেবে ইতিহাসের ভূমিকা কী। পাশাপাশি কোনো নির্দিষ্ট কালের এবং নির্দিষ্ট দেশের ইতিহাস জানার সাথে সমসাময়িক প্রাকৃতিক অবস্থা এবং পরিবেশ সম্পর্কেও ধারণা নেওয়া প্রয়োজন। এই নিবন্ধে ইতিহাসের সংজ্ঞা, বিষয়বস্তু, উপাদান এবং প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হলো।

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার নীতি বা মূলনীতি কয়টি ও কী কী?

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনা একটি বাংলা শব্দ যার ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো...

শিখন-শেখানো পদ্ধতি ও কৌশল

পাঠকে ফলপ্রসূ করার জন্য শিক্ষক পরিস্থিতি অনুসারে একাধিক পদ্ধতি ও কৌশলের সংমিশ্রণে নিজের মতো করে পাঠ পরিচালনা করতে পারেন। পাঠের সাফল্য নির্ভর করে শিক্ষকের বিচক্ষণতা এবং বিষয়জ্ঞান ও শিখন পদ্ধতির যথাযথ প্রয়োগের উপর।

সুশাসন কী? সুশাসনের ধারণা, সংজ্ঞা ও উপাদান কী?

সুশাসন হলো এক ধরনের শাসন প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে ক্ষমতার...