বুধবার, অক্টোবর ৫, ২০২২

শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞান কী? শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের প্রকৃতি বা বৈশিষ্ট্য ও লক্ষ্য কী?

শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিদ্যা পদ্ধতি ও নীতির বৈজ্ঞানিক প্রয়োগ ঘটে। ফলে ব্যক্তি ও সমাজের মধ্যে সুসংগতিপূর্ণ সম্পর্ক, উন্নয়ন ও অগ্রগতি ঘটে।

শিক্ষামূলক সমাজবিজ্ঞান কৃষ্টির ধারাবাহিকতা ও সামাজিক অগ্রগতির একটি মাধ্যম। মানব পরিবেশ কার্যত একটি সামাজিক পরিবেশ। শিক্ষামূলক সমাজবিজ্ঞানটির চিন্তাধারার উপর ভিত্তি করেই গড়ে ওঠে শিক্ষার উদ্দেশ্য, শিক্ষার পাঠক্রম, শিক্ষার পদ্ধতি ইত্যাদি। শিক্ষাগত সমাজবিজ্ঞানের অন্তর্নিহিত মূল ধারণাটি হলো এমন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রভাব বর্ণনা করা যা তাদের প্রভাবের মধ্যে যারা আসে তাদের সামাজিক ব্যক্তিত্ব নির্ধারণ করে। তাই শিক্ষাগত এবং সমাজবিজ্ঞান উভয়ই একটি সম্পূর্ণ শিক্ষামূলক প্রক্রিয়া হিসাবে একত্রে বিবেচিত হয়।

শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের সংজ্ঞা

সমাজবিদ্যা বা সমাজবিজ্ঞানের একটি প্রয়োগমূলক শাখা হলো শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞান। ‘শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞান’-এর ইংরেজি হলো ‘Educational Sociology’

  • George Payne বলেছেন “Educational Sociology is the applied science in the field of sociology” 
  • Ottaway বলেছেন শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞান হলো শিক্ষা এবং সমাজের মধ্যে সম্পর্কের বৈজ্ঞানিক আলোচনা।
  • এফ জে ব্রাউন বলেছেন শিক্ষাগত সমাজবিজ্ঞান একটি ব্যক্তি এবং তার Bos পরিবেশের সমীক্ষার সংমিশ্রণ, যেখানে সামাজিক দলগুলিকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে’ 
  • Robinson Smith বলেছেন “শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞান হলো শিক্ষাক্ষেত্রে সমাজবিদ্যার নীতি ও বৈজ্ঞানিক পদ্ধতির প্রয়োগ।”
  • Cook and Cook বলেছেন “শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞান হলো শিক্ষামূলক প্রক্রিয়ায় মানবিক উপাদানগুলির অধ্যয়ন, যার লক্ষ্যটি সমস্ত ধরনের শিক্ষাব্যবস্থায় শিক্ষাদান এবং শেখার উন্নতি করে।”

শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের প্রকৃতি বা বৈশিষ্ট্য 

শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিদ্যার যে সকল প্রকৃতি পরিলক্ষিত হয়, তা নিম্নরূপ আলোচনা করা হলো:

  • শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিদ্যার প্রকৃতি সমাজের অগ্রগতির সঙ্গে সঙ্গে সাজের উন্নয়ন ও শিক্ষার অগ্রগতি ঘটানো । 
  • শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞান হলো সমাজবিজ্ঞানের একটি প্রয়োগমূলক শাখা। তাই শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের নীতি ও পদ্ধতির বৈজ্ঞানিক প্রয়োগ ঘটে।
  • ব্যক্তি ও সমাজের মধ্যে সুসংগতিপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপিত হয় শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের প্রকৃতির মাধ্যমে। 
  • সমাজের অগ্রগতি ও শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিদ্যার প্রকৃতি হলো শিক্ষার মাধ্যমে সমাজের উন্নয়ন ও অগ্রগতি ঘটানো । 
  • শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের সাহায্যে শিক্ষায় যথাযথভাবে সামাজিক প্রক্রিয়াগুলির সঠিক প্রয়োগ সম্ভব হয় । 
  • শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের প্রকৃতির সাহায্যে সামাজিক প্রক্রিয়ার সঠিক প্রয়োগ সম্ভব হয়। 

পরিশেষে বলা যায় যে, শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিদ্যা পদ্ধতি ও নীতির বৈজ্ঞানিক প্রয়োগ ঘটে। ফলে ব্যক্তি ও সমাজের মধ্যে সুসংগতিপূর্ণ সম্পর্ক, উন্নয়ন ও অগ্রগতি ঘটে।

শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞান শিক্ষার লক্ষ্য 

শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের পরিধি শিক্ষার লক্ষ্য নিধারনে বিশেষ ভূমিকা পালন করে এবং শিক্ষার লক্ষ্যের দিক গুলি সম্পর্কে আলোচনা করে থাকে। 

  • শিক্ষার পদ্ধতি: শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞান শিক্ষার পদ্ধতি কী হবে এবং শিক্ষার্থীদের কোন পদ্ধতিতে শিক্ষা দেওয়া হবে সে সম্পর্কে বিশেষ ভাবে আলোচনা করা হয়ে। 
  • পাঠক্রম: শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের পরিধির অন্তর্গত বিষয় হলো পাঠক্রম। এখানে শিক্ষার্থীদের ওপর গুরুত্ব দিয়ে পাঠক্রমের বিষয়বস্তু নিহারন করা হয়। 
  • শিক্ষকের কার্যাবলি: শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের পরিধির অন্তর্গতআধুনিক শিক্ষায় শিক্ষকের কার্যাবলি সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। 
  • শৃঙ্খলা: শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানে শৃঙ্খলা একটি গুরুত্বপূর্ণ আলোচ্য বিষয় ।শিক্ষার্থীদের মূল্যবোধের মাধ্যমে শৃঙ্খলা স্থাপন করে শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিদ্যায়।

শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের অন্যান্য দিক

  • মানুষ সমাজবদ্ধজীব সমাজের মধ্যে মানুষের বসবাস করে একে অপরের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখে। ফলে দলীয় গতিশীলতা দেখা যায় যা শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের অন্তভুক্ত বিষয়টি।
  • একটি সমাজে মানুষ বিভিন্ন সামাজিক এজেন্সির সাথে মতবিনিময় করে যেমন বাড়ি, পিয়ার গ্রুপ, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ইত্যাদি যা সমাজের মূল্যবোধ, একীভূত করে, স্থানান্তর করে এবং পাস করে। পরিবার হলো প্রথম সামাজিক সংস্থা যার সাথে কোনও সন্তানের সংস্পর্শে আসে।
  • একজন ব্যক্তির মধ্যে একটি সংশোধন নিয়ে আসে যাতে সে তার নিজের মতো করে থাকা সমাজের সাথে খাপ খাইয়ে নিতে এবং সামঞ্জস্য করতে সক্ষম হয়।
  • শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের পরিধি কতকগুলি বিষয়ের দ্বারা সমাজের অগ্রগতি ঘটে, সেগুলিকে সামাজিক নির্ধারক বলে । যেমন জাতি, শ্রেণি, ধর্ম, সংস্কৃতি ইত্যাদি।
  • সমাজ প্রতিনিয়ত পরিবর্তনশীল, পরিবর্তনশীলতায় প্রকৃতি নিয়ম তাই পরিবর্তনশীলতা শিক্ষাশ্রয়ী সমাজবিজ্ঞানের আলোচ্য বিষয়।

বিশ্লেষণ-এর সকল লেটেস্ট নিবন্ধ পেতে Google News-এ অনুসরণ করুন

অধ্যাপক ইদ্রিস আলী
অধ্যাপক ইদ্রিস আলী ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার নাড়াজোল রাজ কলেজের শিক্ষক।

নিবন্ধটি সম্পর্কে আপনার মতামত জানান আমাদেরকে। নিচের মন্তব্যের ঘরে সংক্ষেপে লিখুন আপনার মন্তব্য। মন্তব্যের ভাষা যদি প্রকাশযোগ্য হয় তবে তা এখানে প্রকাশিত হবে। আর যদি আপনার কোনো অপ্রকাশিত নিবন্ধ বিশ্লেষণ-এ প্রকাশ করতে চান তাহলে নিম্নোক্ত ইমেইলে তা পাঠিয়ে দিন নিজের নাম, পরিচয় ও ছবিসহ।

ইমেইল: [email protected]

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন

এই বিভাগের অন্যান্য নিবন্ধ

সমাজমাধ্যম

সাম্প্রতিক মন্তব্য

সবচেয়ে জনপ্রিয়
সবচেয়ে জনপ্রিয়

গবেষণা: গবেষণার সংজ্ঞা, ধারণা ও প্রকারভেদ

গবেষণা হলো কোনো কিছু সম্পর্কে জানার জন্য নিয়মতান্ত্রিক ও ধারাবাহিকভাবে অনুসন্ধান প্রক্রিয়া এবং একটি গবেষণা শুধু একটি প্রকারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ না থেকে দুই বা ততোধিক প্রকারের হতে পারে

শিক্ষা কী? শিক্ষার সংজ্ঞা, ধারণা এবং লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

শিক্ষা নিয়ে যারা কথা বলেছেন তাঁরা প্রত্যেকেই নিজের মতো করে ভেবে নিয়েছেন শিক্ষাকে, নিজের মতো করে সংজ্ঞা দিয়েছেন। শিক্ষাবীদ কিংবা মনিষী, যার সংজ্ঞাই দেখা হোক না কেন, খুব একটা সন্তুষ্ট হওয়া যায় না। তাই বলে যাদের হাত ধরে শিক্ষা ও শিক্ষাব্যবস্থা আজ পর্যন্ত এসেছে তাঁদের মতো শিক্ষাবিদ বা মনিষীদের বলে যাওয়া বা লিখে যাওয়া কথাগুলোকে এড়িয়ে চলাও সম্ভব নয়।

মূল্যবোধ কাকে বলে এবং মূল্যবোধের উৎস ও প্রকারভেদ কী?

মূল্যবোধ শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ হচ্ছে Value এটি গঠিত হয়েছে...

পরিবার কাকে বলে? পরিবারের সংজ্ঞা, ধারণা, প্রকারভেদ, কার্যাবলি ও গুরুত্ব কী?

আমরা জন্ম থেকেই পরিবারের সাথে পরিচিত। আমরা নিশ্চয়ই অবগত...

শিক্ষা: অভীক্ষার সংজ্ঞা এবং বৈশিষ্ট্য

শিক্ষাক্ষেত্রে অভীক্ষা খুবই পরিচিত একটি পদ। যারা শিক্ষাবিজ্ঞান পড়েছেন...

নেতা ও নেতৃত্ব কাকে বলে? একজন আদর্শ নেতার গুণাবলি কী?

নেতৃত্বের মূল কাজ হলো আওতাভুক্ত ব্যক্তিবর্গকে প্রভাবিত করা, যাতে তারা নেতার নির্দেশ মেনে নেয় ও সে মোতাবেক কাজ করে। 

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার সংজ্ঞা, পরিধি এবং গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা

মানব সভ্যতার শুরু থেকেই ব্যবস্থাপনা বিভিন্ন মানব সংগঠনের সাথে...

ইতিহাস কাকে বলে? ইতিহাসের বিষয়বস্তু, উপাদান এবং ইতিহাস পাঠের প্রয়োজনীয়তা কী?

ইতিহাস পাঠ করার আগে আমাদের প্রত্যেকেরই জানা প্রয়োজন ইতিহাস কী, ইতিহাসের প্রকৃতি কীরূপ; আবার পাঠ্য বিষয় হিসেবে ইতিহাসের ভূমিকা কী। পাশাপাশি কোনো নির্দিষ্ট কালের এবং নির্দিষ্ট দেশের ইতিহাস জানার সাথে সমসাময়িক প্রাকৃতিক অবস্থা এবং পরিবেশ সম্পর্কেও ধারণা নেওয়া প্রয়োজন। এই নিবন্ধে ইতিহাসের সংজ্ঞা, বিষয়বস্তু, উপাদান এবং প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হলো।

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার নীতি বা মূলনীতি কয়টি ও কী কী?

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনা একটি বাংলা শব্দ যার ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো...

শিখন-শেখানো পদ্ধতি ও কৌশল

পাঠকে ফলপ্রসূ করার জন্য শিক্ষক পরিস্থিতি অনুসারে একাধিক পদ্ধতি ও কৌশলের সংমিশ্রণে নিজের মতো করে পাঠ পরিচালনা করতে পারেন। পাঠের সাফল্য নির্ভর করে শিক্ষকের বিচক্ষণতা এবং বিষয়জ্ঞান ও শিখন পদ্ধতির যথাযথ প্রয়োগের উপর।

সুশাসন কী? সুশাসনের ধারণা, সংজ্ঞা ও উপাদান কী?

সুশাসন হলো এক ধরনের শাসন প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে ক্ষমতার...