সোমবার, জুলাই ৪, ২০২২

নির্দেশনা কাকে বলে? নির্দেশনার গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা কী?

যুক্তিসঙ্গত নির্দেশনা প্রতিপালন এবং অনুসরণ করা অপেক্ষাকৃত সহজসাধ্য। অযৌক্তিক কোনো আদেশ ব্যবস্থাপনার যোগ্যতা সম্পর্কে বিতর্কের সৃষ্টি করতে পারে। নির্দেশনা তদারকের অংশ বিশেষ।

নির্দেশনা কী? (What is Direction?) 

পরিকল্পনা অনুযায়ী কার্য সম্পাদনের জন্য ব্যবস্থাপক অধস্তনদেরকে যে আদেশ বা নির্দেশ প্রদান করে, তাকে নির্দেশনা বলে। ব্যবস্থাপক কোন কাজ কখন, কীভাবে সম্পাদন করতে হবে সে সম্পর্কে কর্মীদেরকে নির্দেশনা দেন। নির্দেশনা শুধুমাত্র আদেশ জারির মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। লক্ষ্য অর্জনের সাথে জড়িত উপদেশ, পরামর্শ অবহিতকরণ, প্ররোচনাদান, আদিষ্ট কাজের তদারকিকরণ ইত্যাদি সবই নির্দেশনার অন্তর্ভুক্ত। উর্ধ্বতন ব্যক্তিই অধস্তনদেরকে নির্দেশ দিয়ে থাকে।

নির্দেশনার সংজ্ঞা

ডাব্লিউ. এইচ. নিউম্যান (W.H. Newman)-এর মতে, “নির্দেশনা হলো একজন নির্বাহী কর্তৃক তার অধীনস্তদের প্রতি নির্দেশ জারি করা অথবা কি করতে হবে তার ইঙ্গিত দেওয়া” (Direction is concerned with the way an executive issues instructions to his subordinates and otherwise indicates what should be done.)।

মার্শাল ই. ডিমক (Marshall E. Demok)-এর মতে, “নির্দেশনা হলো প্রশাসনের হৃদপিণ্ড যা কার্য-পরম্পরা নির্ধারণ, আদেশ ও নির্দেশ প্রদান এবং গতিশীল নেতৃত্ব সৃষ্টির সাথে জড়িত।” (The heart of administration is the directing function which involves determining the courses, giving orders and instructions providing a dynamic leadership.)। 

উপরের আলোচনা থেকে বলা যায়, যে প্রক্রিয়ায় ব্যবস্থাপক তার অধীনস্ত কর্মীদেরকে পরিকল্পনা অনুযায়ী কোনো কাজ করার নির্দেশ প্রদান করেন তাকে নির্দেশনা বলে। নির্দেশনাকে প্রশাসনের হৃদপিণ্ড বলা হয়। 

নির্দেশনার বৈশিষ্ট্য (Features of Direction)

নির্দেশনা প্রক্রিয়ার কতকগুলো বিশেষ বৈশিষ্ট্য নিচে আলোচনা করা হলো:

  • প্রক্রিয়া (Process): নির্দেশনা একটি প্রক্রিয়া যে প্রক্রিয়ার মাধ্যমে কর্মীদেরকে পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য ব্যবস্থাপক নির্দেশ প্রদান করে থাকে। 
  • যৌক্তিকতা (Logicality): নির্দেশনা অবশ্যই যৌক্তিক বিষয়ে, সময়ে এবং উপায়ে হতে হয়। 
  • পূর্ণাঙ্গতা (Completeness): নির্দেশনা অবশ্যই পূর্ণাঙ্গ হতে হবে। 
  • লিখিত (Written): ব্যবস্থাপনার নির্দেশ লিখিত হওয়া উচিত। লিখিত নির্দেশের প্রমাণ থাকে। ফলে লিখিত নির্দেশ কেউই অস্বীকার করতে পারে না। 
  • গ্রহণযোগ্যতা (Acceptability): নির্দেশনা কর্মীবৃন্দের নিকট গ্রহণযোগ্য হলে কর্মীরা সেগুলোকে স্বতঃস্ফূর্তভাবে এবং উৎসাহ নিয়ে বাস্তবায়নে অগ্রসর হবে। 
  • তদারকের অংশ (Part of supervision): নির্দেশনা তদারকির অংশ বিশেষ। 
  • প্রবাহের গতি (Motion): উপরের স্তরের নির্বাহীরা নিচের স্তরের কর্মীদেরকে নির্দেশ দিয়ে থাকেন। 
  • সহজবোধ্যতা (Easy Understanding): নির্দেশনা অবশ্যই স্পষ্ট ও সহজবোধ্য হতে হবে।

নির্দেশনার গুরুত্ব বা প্রয়োজনীয়তা (Importance or Necessity of Direction)

কোনো প্রতিষ্ঠানের পরিকল্পনার সঠিক বাস্তবায়নের জন্য নির্দেশনার প্রয়োজন হয়। এ কারণে নির্দেশনার গুরুত্ব অনেক বেশি। নিচে নির্দেশনার গুরুত্ব বা প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করা হলো 

  • পরিকল্পনা বাস্তবায়ন (Implementation of plan): পরিকল্পনাকে বাস্তবে রূপদানের জন্য নির্দেশনা প্রয়োজন। 
  • কার্যে গতিশীলতা সৃষ্টি (Creation of dynamism in activities): নির্দেশনা প্রতিষ্ঠানে কার্য সম্পাদনের গতিশীলতা সৃষ্টি করে। 
  • কাজের রূপরেখা নির্ধারণ (Determining guideline of the work): কোন্ কাজ, কিভাবে করা হবে সে সম্পর্কে কর্মীদেরকে পুরোপুরি ধারণা দেয়া হয় নির্দেশনার মাধ্যমেই। 
  • দক্ষতা বৃদ্ধি (Increasing efficiency): নির্দেশনার মাধ্যমে অধস্তন কর্মী কার্য সম্পাদনের সঠিক রীতি-পদ্ধতি সম্পর্কে অবহিত হতে পারে বিধায় কর্মীর দক্ষতা বৃদ্ধি পায়। 
  • প্রেষণা দান (Development of communication): নির্দেশনার মাধ্যমেই উপরওয়ালা কর্মীদেরকে কার্য সম্পাদনে উদ্বুদ্ধ করতে পারেন। 
  • যোগাযোগের উন্নয়ন (Development of communication): নির্দেশনার মাধ্যমে কর্মীদের সাথে ব্যবস্থাপকদের কার্যকর যোগাযোগ হয় বিধায় এতে পরস্পরের মধ্যে যোগাযোগের উন্নয়ন ঘটে। 
  • দ্রুত কার্য সম্পদন (Rapid performance): নির্দেশনায় কার্য সম্পাদনের পূর্ণ নিয়মকানুন উল্লেখ থাকে। কর্মীরা নির্ধারিত পদ্ধতি অনুসরণ করে দ্রুত কার্য সম্পাদন করতে পারে। 
  • উত্তম কার্য পরিবেশ সৃষ্টি (Creation of good working environment): নির্দেশনার যথার্থ প্রয়োগ সুষ্ঠু কার্য সম্পাদন ও উত্তম কার্য-পরিবেশ সৃষ্টির সহায়ক। 
  • সহজ নিয়ন্ত্রণ (Easy controlling): নির্দেশনার মাধ্যমে সকল খুঁটিনাটি দিক সম্পর্কে কর্মীদেরকে অবহিত করা হয় বিধায় প্রতিষ্ঠানের নিয়ন্ত্রণ কাজ সহজ হয়।

পাঠসংক্ষেপ

প্রাতিষ্ঠানিক লক্ষ্য অর্জনের সাথে জড়িত উপদেশ, পরামর্শ, ইচ্ছার প্রকাশ, অবহিতকরণ, প্ররোচনাদান, আদিষ্ট কাজের তদারকিকরণ ইত্যাদি সবই নির্দেশনার অন্তর্ভুক্ত। কোনো প্রতিষ্ঠানের পরিকল্পনার সঠিক বাস্তবায়নের জন্য নির্দেশনার প্রয়োজন হয়। নির্দেশনাহীন কোনো প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের অবস্থাটা অনেকটা চালকবিহীন গাড়িতে বসে থাকার মতো। নির্দেশনা অবশ্যই যৌক্তিক বিষয়ে, সময়ে এবং উপায়ে হতে হয়। যুক্তিসঙ্গত নির্দেশনা প্রতিপালন এবং অনুসরণ করা অপেক্ষাকৃত সহজসাধ্য। অযৌক্তিক কোনো আদেশ ব্যবস্থাপনার যোগ্যতা সম্পর্কে বিতর্কের সৃষ্টি করতে পারে। নির্দেশনা তদারকের অংশ বিশেষ। তদারকের অংশ হিসেবে নির্দেশনা প্রতিষ্ঠানের সাফল্য অর্জনে বিরাট ভূমিকা পালন করে। নির্দেশনা অবশ্যই স্পষ্ট ও সহজবোধ্য হতে হবে, অন্যথায় কর্মীদের মধ্যে নির্দেশ বাস্তবায়নে সমস্যার সৃষ্টি হয়। সহজ নির্দেশ প্রতিপালনও সহজতর হয়।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন

এই বিভাগের অন্যান্য নিবন্ধ

সমাজমাধ্যম

সবচেয়ে জনপ্রিয়
সবচেয়ে জনপ্রিয়

গবেষণা: গবেষণার সংজ্ঞা, ধারণা ও প্রকারভেদ

গবেষণা হলো কোনো কিছু সম্পর্কে জানার জন্য নিয়মতান্ত্রিক ও ধারাবাহিকভাবে অনুসন্ধান প্রক্রিয়া এবং একটি গবেষণা শুধু একটি প্রকারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ না থেকে দুই বা ততোধিক প্রকারের হতে পারে

শিক্ষা কী? শিক্ষার সংজ্ঞা, ধারণা এবং লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য

শিক্ষা নিয়ে যারা কথা বলেছেন তাঁরা প্রত্যেকেই নিজের মতো করে ভেবে নিয়েছেন শিক্ষাকে, নিজের মতো করে সংজ্ঞা দিয়েছেন। শিক্ষাবীদ কিংবা মনিষী, যার সংজ্ঞাই দেখা হোক না কেন, খুব একটা সন্তুষ্ট হওয়া যায় না। তাই বলে যাদের হাত ধরে শিক্ষা ও শিক্ষাব্যবস্থা আজ পর্যন্ত এসেছে তাঁদের মতো শিক্ষাবিদ বা মনিষীদের বলে যাওয়া বা লিখে যাওয়া কথাগুলোকে এড়িয়ে চলাও সম্ভব নয়।

মূল্যবোধ কাকে বলে এবং মূল্যবোধের উৎস ও প্রকারভেদ কী?

মূল্যবোধ শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ হচ্ছে Value এটি গঠিত হয়েছে...

শিক্ষা: অভীক্ষার সংজ্ঞা এবং বৈশিষ্ট্য

শিক্ষাক্ষেত্রে অভীক্ষা খুবই পরিচিত একটি পদ। যারা শিক্ষাবিজ্ঞান পড়েছেন...

নেতা ও নেতৃত্ব কাকে বলে? একজন আদর্শ নেতার গুণাবলি কী?

নেতৃত্বের মূল কাজ হলো আওতাভুক্ত ব্যক্তিবর্গকে প্রভাবিত করা, যাতে তারা নেতার নির্দেশ মেনে নেয় ও সে মোতাবেক কাজ করে। 

পরিবার কাকে বলে? পরিবারের সংজ্ঞা, ধারণা, প্রকারভেদ, কার্যাবলি ও গুরুত্ব কী?

আমরা জন্ম থেকেই পরিবারের সাথে পরিচিত। আমরা নিশ্চয়ই অবগত...

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার সংজ্ঞা, পরিধি এবং গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা

মানব সভ্যতার শুরু থেকেই ব্যবস্থাপনা বিভিন্ন মানব সংগঠনের সাথে...

ইতিহাস কাকে বলে? ইতিহাসের বিষয়বস্তু, উপাদান এবং ইতিহাস পাঠের প্রয়োজনীয়তা কী?

ইতিহাস পাঠ করার আগে আমাদের প্রত্যেকেরই জানা প্রয়োজন ইতিহাস কী, ইতিহাসের প্রকৃতি কীরূপ; আবার পাঠ্য বিষয় হিসেবে ইতিহাসের ভূমিকা কী। পাশাপাশি কোনো নির্দিষ্ট কালের এবং নির্দিষ্ট দেশের ইতিহাস জানার সাথে সমসাময়িক প্রাকৃতিক অবস্থা এবং পরিবেশ সম্পর্কেও ধারণা নেওয়া প্রয়োজন। এই নিবন্ধে ইতিহাসের সংজ্ঞা, বিষয়বস্তু, উপাদান এবং প্রয়োজনীয়তা নিয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হলো।

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনার নীতি বা মূলনীতি কয়টি ও কী কী?

ব্যবস্থাপনা কী? ব্যবস্থাপনা একটি বাংলা শব্দ যার ইংরেজি প্রতিশব্দ হলো...

সুশাসন কী? সুশাসনের ধারণা, সংজ্ঞা ও উপাদান কী?

সুশাসন হলো এক ধরনের শাসন প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে ক্ষমতার...

পাঠ পরিকল্পনা: পাঠ পরিকল্পনার সংজ্ঞা এবং হার্বার্টের পঞ্চসোপান ও আধুনিক ত্রিসোপান

শিক্ষার্থীরা কী শিখবে, কীভাবে তা শেখানো হবে এবং কীভাবে শিখন মূল্যায়ন করা হবে সে সম্পর্কে শিক্ষকের দৈনন্দিন নির্দেশনা হলো পাঠ পরিকল্পনা